পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৬৯২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৬০ e বিনোদে বিদায় দিয়ে, কাতরা কুমুদী-হিয়ে, জলে মুখ লুকাইয়ে, করিছে রোদন ॥ কমল বিমল নীরে, ভাগিছে হাসিছে ধীরে, পুন পাইবে মিহিরে, হবে শুভ সম্মিলন । । বাগেশ্ৰী—আড়াঠেকা । কে রচিবে মধুচক্ৰ মধুকর মধু বিনে । মধুহীন বঙ্গভূমি হইয়াছে এত দিনে ॥ কুহু কী কল্পনা-বলে, কে আনিবে রঙ্গস্থলে, কুমারী কৃষ্ণ-কমলে, মোহিতে মনে ॥ কে অপূর্ব তান-লয়ে, বীর-রসে মাতাইয়ে, শুনাইবে মেঘনাদে গভীর গর্জনে । বীর-মদে অম্বুনাদে, কে আনিবে মেঘনাদে, কঁদিবে প্রমীলা সনে, কেলি-বিপিনে ॥ বাগেই মিশ্র –ধামার । নব ভাবে নিত্য-লীলা বুঝরে অন্তর। বয় প্রেমতরঙ্গ নব রঙ্গ, হের রাধা দামোদর ॥ বুঝতে ভুবন মাঝে, পরমাণু মাঝে রাজে, প্রেমে একাধারে চরাচরে, ব্রজকিশোরী-কিশোর ॥ বুঝি চেতন-শীল হেরি নয়নে, দোললীলা স্থলে জলে বিমান পবনে, অনন্ত অনন্ত স্থানে, অনন্ত প্রেমের লহর । ইমনৃ-ভূপালী—এক ভাল। যাবে ফেলে চ'লে এতদিনে । কবে হবে দেখ, মনে রবে অঁকা, নিজ-গুণে নেছ কিনে ॥ যে দেখেছে তব স্নেহ-ভরা হাসি, সে হাসির সেই হবে অভিলাষী, সরল বান্ধব, ভুবনে দুর্লভ, ঋণী আছে সবে সৌজন্তের ঋণে ॥ যথা যাবে পাবে সম যশোমান, নাহি তব অরি, মিত্ৰ সৰ্ব্বস্থান, সৰ্ব্বত্র সমান তোমার ধীমান, রব ম্ৰিয়মাণ মোরা তোমা বিনে ॥ পেলে অবকাশ করো কভু মনে, তব দরশন মাগে বন্ধুগণে, বাঙ্গালীর গান । । তব প্রিয়ভাষ, সতত প্রয়াস, তব স্মৃতি মধু হৃদয় নলিনে । ভৈররী—শ্নথ-ত্রিতালী । তাপিত পীড়ার তাপে, দীন হীন নিরাশ্রয়। উৎসর্গ তোমার নামে আজি সে দীন-আলয়। মহা-আত্মা তৃপ্ত হয়ে, এস তাপিত-আশ্রয়ে, তারিতে ভয়ার্থে ভয়ে, ভবে তব পরিচয় । অলক্ষ্য প্রভাবে তব, পীড়া ভাবে পরাভব, হবে করি নাম তব, শীতল দগ্ধ-হৃদয় ॥ கம் ভৈর দী- -রূপক্ষ । নিরানন্দ শুন্যময় ঈদয়-চন্দ্র বিহনে। এই কি ছিল প্রভু তব মনে ॥ দশকুণী । কোথায় লুকালে ছলে, কেন নি}র নাথ হ'লে, রাখা চরণ-কমলে, প্রাণ জলে, লোকে কতই কয় হে, ওহে অনাথ-নাথ, সকাতরে তোমায় ডাকি, নয়ন-কোণে চাওহে কমল আঁখি। দোলন । অকূল নীরে ভাসি, কেন দানের গলে দিলে ফাসী। একবার দেখি চাদ বদনে হাসি, (দীননাথ দীননাথ ওহে দীননাথ ) তোমার রাঙ্গাচরণ-অভিলাষী, ( দীননাথ দীননাথ ওহে দীননাথ ) তোমার মধুর হাসি ভালবাসি। এক ভাল । করি নি যতন মান, তাই করেছ কি অভিমান, হীন এ অধীন গুণহীন, জানো অন্তর্যামী চিরদিন, তবে কি গুণে চরণ দিলে, বল কি দোষে হরে নিলে ॥ क्षोभोग्नु । ব’ল নাথ যাতনা কত সয়। নিদয় হৃদয়, কেন রসময়, ইন বলে কি ব্যথা দিতে হয়।