পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৭৯৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কাববর হেমচন্দ্র । 1 ff * . ऋगत्र अडौह-७णे, भद्रजाण प्र-द्रनाग, বেণুৰন্থ ললিত বাদন। সারঙ্গী মৃদুল-মুর, খোররব তানপুর, এস্রাঞ্জ মধুর গর্জন; বেহালা সুপরিপাটী, জল-তরঙ্গের বাট, বীণা তন্ত্রী কোকিল-লাঞ্ছন। আজি রঙ্গে বাজা বীজ, গভীর দামামা সঙ্গে, আজি রে সুখের দিন শারদ পাৰ্ব্বণ ॥ ६ङङ्गरो-श्रांप्ल1।। জীবন এমন ভ্রম আগে কে জনিত রে— হয়ে এত লালায়িত কে ইহা যাচিত রে। প্রভাতে অরুণোদয়, প্রফুল্ল যেমন হয়, মনোহরা বসুন্ধর কুহেলিকা আঁধারে । বারিদ, ভূধর দেশ, ধরিয়া অপুৰ্ব্ব বেশ, বিতরে বিচিত্র শোভা ছায়াবাজী-আকারে ॥ কুমুমিত তরুচয়, ব্ৰহ্মাণ্ড ভরিয়ে রয়, ভ্রাণে মুগ্ধ সমীরণ মৃদু মৃদু সঞ্চারে। কুলায়ে বিহঙ্গদল, প্রেমাননো অনর্গল, মধুময় কলনাদ করে কত প্রকরে। সেইরূপ বাল্যকালে, মন মুগ্ধ মায়াজলে কত লুব্ধ আশা আসি স্নিগ্ধ করে আত্মারে। “পৃথিবী ললামভূত, নিত্য মুখে পরিপ্লুত, হয় নিত্য এই গীত পঞ্চভূতমাঞ্চারে। ব্ৰহ্মাও সৌরভময় মঞ্জু কুঞ্জ মনে হয়, মনে হয় সমুদয় মুধাময়, সংসারে। মধ্যাহ্নে তাহার পর, প্রচণ্ড রবির কর, যেমন সে মনোহর মধুরতা সংহারে। না থাকে কুহেলি অন্ধ না থাকে কুহুম গন্ধ, f ন ডাকে বিহগকুল, সমীরণ ঝঙ্কারে। সেইরূপ ক্রমে যত, মনোমত সাধ তত ভাঙ্গে চিত্তবিকারে। সুবৰ্ণ মেঘের আল। লয়ে সৌদামিনী ডালা, আশার আকাশে আর নিত্য নাছি বিরে ছিন্ন জুরের খায়, বাল্যবা রেখায়, ষ্ঠাপক জীবনের কথাবায়ুপ্রহরে। , ***षीरके ग७ *थी**क्षिणद१७ শৈশব যৌবনগত। ۹۰ ۹ জীবনেতে পরিণত এই রূপে হয় কত মৰ্ত্তবাসি মনোরখ, হাদগ্ধ বিধাতারে। ধৰ্ম্মনিষ্ঠা-পরায়ণ, সুচারু পবিত্ৰ-মন, বিমলস্বভাব সেই যুবা এবে কোথা রে । অসত্য-কলুষলেশ, বিধিগে শ্রবণদেশ, কলঙ্কিত ভাবিত যে আপনার আত্মারে। বামাসক্তি বামাচার, শুনিলে শত ধিক্কার জলিত অস্তরে যার সে তপস্বী কোধারে। কোথা সে দয়ার্ডচিত্ত, সংকল্প যাহার নিত্য, পরদুঃখ-বিমোচন এ দুরন্ত সংসারে। অত্যাচার উৎপীড়ন, করিবারে সংযমন, না করিত সেই জন ভেদাভেদ কাহারে। না মানিত অনুরোধ, নাজনিত তোষামোদ, সে তেজস্বী মহোদয়-বাঞ্ছা এবে কোথা রে ॥ কত যুবা যৌবনতে চড়ি আশী-বিমানেত্বে ভাবে ছড়াইবে ভবে যশঃপ্রভা আভা রে ॥ তুলিবে কীৰ্ত্তির মঠ, স্থাপিবে মঙ্গল ঘট, প্ৰণত ধরণীতল দিৰুে নিত্য পুজারে। কেহ বা জগতে ধন্ত, বীরবৃন্দে অগ্রগণ্য, হয়ে চাহে চরণেতে বধিবারে ধরারে। স্বদেশ-হিতৈষী কেই ভাবিয়া অসীম স্নেহ । ব্রত করে প্রাণ দিতে স্বজাতির উদ্ধারে। কার চিত্তে অভিলাষ, হবে সারদার দাস, পীবে মুখে চিরদিন অমরতা মুধারে। কালের করাল স্রোতে, ভাসে সবে জীবনেতে এই সব আশালুব্ধ প্রাণী থাকে কোথা রে । কিশোর গাণ্ডীবধারী, জামদগ্ন্য দৈত্যহারী, ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কালিদাস কত ডোবে পাথরে। কতই যুবতী বালা, গাথে মনোমত মালা, সাজাইতে মনোমত প্রিয়তম সখীরে ॥ হৃদয় মার্জিত করে, আহা কত প্রেমভরে প্লিয়মূৰ্ত্তি চিত্র করে রাখে চিত্ত-আগারে। নব বিবাহিত কত, পেয়ে পতি মনোমত, ভাবে জগতের মুখ ভরিষ্কাছে ড্রাওরে। , এই সব অবলার, কিছু দিন পরে আর, দেখ, মৰ্ম্মন্ত্রেী শেল দেয় কত ব্যখারে। খে গেৰেহৰা অয়, হয়েছে পঞ্চসার, उरू इङ्गभानाशी झुछ णश् औषcद्र ।