পাতা:বিক্রমোর্ব্বশী (রামসদয় ভট্টাচার্য্য).pdf/৭২

উইকিসংকলন থেকে
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

তৃতীয় অঙ্ক । ১৭ কহিলেন বয়স্য ! অধিক কি কহিব, এই স্থরবিলাসিনীর সমাগমলাভে আমি যেৰূপ পরিতৃপ্ত হইয়ছি, সসাগর। ধরণীর একাধিপত্য প্রাপ্ত হইয়াও আপনাকে তাদৃশ কুতকার্য্য বোধ করি নাই, এই বলিয়! সাদরে উৰ্ব্বশীর হস্ত ধারণপূর্বক কহিতে লাগিলেন, সুন্দরি । মুখের অবস্থায় । ষে সকলেই আত্মীয়তা করে, এ অতি যথার্থ কথা । দেখ ষে সুধাংশুfকরণ অগ্নিকশার ন্যায় শরীর দাছ কfরত্র, তাহা আজি মুশীতল চন্দনরসের ন্যায় দেহের স্বাস্থ্য সাধন করিতেছে ; যে সকল কোকিলকলরব বজুনিঘোষ স্বরূপ বোধ হইত, তাহা এক্ষণে মধু ধীর বর্ষণ করিতেছে ; এপং যে সকল সুরভিগন্ধ মনকে নিত্যপ্ত উৎকণ্ঠিত কবিত, তাছাতে হৃদয় যৎপরোনাস্তি প্রফুল্প হইতেছে ; অধিক কি বলিব যে যে মনোরম বস্তুজাত হৃদয় যা তম র অপির্তাব করিত সে সমুদায়ই এক্ষণে আনন্দনীরের প্রস্ত্ৰৰণ স্বরূপ প্রতীয়মান হইতেছে! উৰ্ব্বশী বিনীতবচনে ক*ি লেম মহারাজ ! ইহুদিগের কিছুই দোষ নাই আমিই বিলম্বে আসিয়া সম্পর্ণ অপরাধিনী হুইয়াছি। নরপতি কহিলেন সুন্দরি । দুঃখের পর মুখ যেমন প্রীতিকর, ধারাবাহিক মুখ সেৰূপ সন্তোষকর মহে । দেখ তৰুচ্ছায়া স্বভাবতঃ শীতল ; কিন্তু আত্মপতাপিত না হইলে তাহার যথার্থ শৈত্য গুণ অন্ধুভব করা যায় না । এইৰূপ কথোপকথন হইতেছে এমত সময়ে মানবক কহিলেম বয়স্য ! আমরা অধিক ক্ষণ এই অনাবৃতস্থানে অবস্থান করিতেছি,এস্থানে আর অধিক ক্ষণ থাকা উচিত