পাতা:বিচিত্রিতা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


У о বিচিত্রিতা তুমি এসে যদি পাশে নাহি দাও স্থান হে কিশোর, তাহে নারীর অসম্মান । তব কল্যাণে কুঙ্কুম তার ভালে, তব প্রাঙ্গণে সন্ধ্যা প্রদীপ জ্বালে, তব বন্দনে সাজায় পূজার থালে প্রাণের শ্রেষ্ঠ দান ॥ তুমি নাই, মিছে বসন্ত আসে বনে বিরহ-বিকল চঞ্চল সমীরণে । দুৰ্ব্বল মোহ কেন আয়োজন করে যেথা অরাজক হিয়া লজ্জায় মরে, ঐ ডাকে, রাজা, এসে এ শূন্য ঘরে হৃদয় সিংহাসনে ॥ চেয়ে আছে নারী, প্রদীপ হয়েছে জ্বালা, বিফল কোরো না বীরের বরণ ডালা । মিলন লগ্ন বারে বারে ফিরে যায় বরসজ্জার ব্যর্থতা বেদনায়, মনে মনে সদা ব্যথিত কল্পনায় তোমারে পরায় মালা ॥ তব রথ তারা স্বপ্নে দেখিছে জেগে, ছুটিছে অশ্ব বিছ্যৎ-কষা লেগে । ঘুরিছে চক্র বহ্নি-বরণ সে যে, উঠিছে শূন্যে ঘর্ঘর তার বেজে, প্রোজ্জল চুড়া প্রভাত সূৰ্য্যতেজে, ধ্বজ রঞ্জিত রাঙা সন্ধ্যার মেঘে ।