পাতা:বিবিধ প্রবন্ধ (ভূদেব মুখোপাধ্যায়) প্রথম ভাগ.djvu/১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

বিবিধ প্রবন্ধ। S X . “তমনি তন্মলে! পরিভাহি পরিভাহি জিআবেছি অজ্ঞউত্তং" ভগবতি তমসে পরিত্রাশ কর, পরিত্রাণ কর আর্য্যপুত্রকে বাচাও । ” তমসা কহিলেন,— ত্বমেব নমু কল্যাণি সঞ্জীবয় জগৎপতিং। প্রিয়ম্পর্শে হি পাণিস্তে তত্রৈব নিয়তো ভবঃ। হে কল্যাণি তুমিই জগৎপতিকে সঞ্জীবিত কর, তোমার পাণি প্রিয়স্পৰ্শ, তাহাতে সঞ্জীবন । সীতা বলিলেন, - জং ছোছ তং হো জহা ভঅবদী ভণাদি। যা হয় হউক, ভগবতী যেরূপ বলিতেছেন। এই জং হৰ্ছ তং হোছ কথাটা কি চমৎকার ভাবপূর্ণ। এতদ্বারা কবি দেখাইয়াছেন যে, অকারণপরিত্যাগজনিত গুঢ় অভিমানে এবং কোমলপ্রকৃতিসুলভ ভয়ে সীতার হৃদয় পূর্ণ ছিল। সীতা মনে মনে ভাবিয়াছিলেন যে, আমি পরিত্যক্ত পত্নী, স্বামীর শরীরস্পর্শে আমার অধিকার কি ? আমি স্পর্শ করিয়াছি জানিতে পারিলে তিনি কুপিত হইতেও পারেন। এইরূপ ভাবিয়া তিনি বলিয়াছিলেন, যা হইবার হউক, অর্থাৎ আমার ভাগ্যে যাহা হইবার তাহা হউক বলিয়া রামের শরীর শর্শ করিতে গেলেন। রাম সীতাকর্তৃক শরীরম্পর্শমাত্রে আহলাদে উচ্ছসিত হইলেন। সীতা বলিলেন, জাণে পুণোবি পচ্চাগদং বিঅ জীবি দংতেল্লোঅণাহসস। ত্রিলোকনাথের জীবন পুনরপি প্রত্যাগত বোধ করিতেছি। পাঠক দেখুন, ইতঃপূৰ্ব্বেই তমসা রামকে জগৎপতি শব্দে নির্দেশ করিয়াছিলেন, সীতাও তাহার অনুসরণে “তেল্লোআণাহ” বলিলেন। তদ্ভিন্ন কবি ত্রিলোকনাথ এই শব্দটীর অপর সার্থকতাও দেখাইয়াছেন। রাম—লোকনাথ-রাজ+–প্ৰজাপালক তমসার বাক্যে এই ভাবট