পাতা:বিশ্বকোষ ঊনবিংশ খণ্ড.djvu/৬৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বর্ষপ্রবেশ [ ૭8ના ] বর্ষপ্রবেশ

జa

ঠিক বৎসর পূর্ণ হইয়া নৰবর্ষের আরম্ভ হইল, তাহা ইহা দ্বারা সুশ্নরূপে জানা যায় । বর্ষপ্রবেশ দ্বারা জাতকের বৎসরের শুভাশুভ ফলনির্ণয় করা যায়, বর্যপ্রবেশ লঙ্ক স্থির করিয়া দ্বাদশ মাসের কোন মাসে শুভাশুভ কি ফল হইবে, তাহা ইহা দ্বার উত্তমরূপে জানা যায়। তাজিকে বর্ষ প্রবেশের প্রণালী এইরূপ বর্ণিত আছে - জন্মসময়ে রবি যে রাশির যত অংশাদিতে অবস্থিতি করেন, পুনৰ্ব্বার রবি যে সময়ে সেই রাশির তত অংশাদিতে আগমন করেন, সেই সময়ই বর্ষপ্রবেশ সময়। রবিন্ধট স্থির করিয়াও বর্ষপ্রবেশ সময় নির্ণয় করা যায় । কিন্তু তাহা অতি আয়াসসাধা। এই রবিন টু দ্বার বর্ষপ্রবেশ সময় স্থির করিলে অতি সূক্ষ্মৰূপে সময় স্থির হয় । গ্ৰহগণের গোচরফলের যে তারতম্য, তাক প্রতিবৎসর বর্ষপ্ৰবেশকালীন লগ্ন ও গ্রহগণের স্থিতিদ্বারা নিরূপণ করা যায়। প্রত্যেক ব্যক্তির জন্মমাস হইতে নূতন বৎসর আরস্ত হষ্টয়া থাকে। সচরাচর ৩৬৫ দিনে এক সৌর বৎসর গৃহীত হয় । কিন্তু প্রকৃত সৌর বৎসর উহ্য অপেক্ষা আরও ১৫ দও, ৩১ পল, ৩১ বিপল, ২৪ অমুপল অধিক। যে বারে বৎসর আরম্ভ হয়, তাহার পরবারে পরবৎসর হইয়া থাকে। অতএব জন্মদিন হইতে যত বৎসর গত হইবে, তাহা দ্বারা ১ বার ১৫ দগু, ৩১ পল, ৩১ বিপল ২৪ অনুপল গুণ করিবে এবং সেই গুণফলে জন্মবার ও দগুদি যোগ করিলে যে যোগফল হইবে, তাহাই বর্ষপ্রবেশের বার ও দগুদি জানিতে হইবে । উক্ত ! কঁপে যোগ করিলে যদি বারের অঙ্ক সাতের অধিক হয়, তাহা । গুইলে ৭ দ্বাবা হরণ কবিয়া ১ অবশিষ্ট থাকিলে রবিবার, ২ অবশিষ্ট পাকিলে সোমবার ইত্যাদি বিবেচনা করিতে হইবে । বর্ষপ্রবেশ নির্ণয় করিবার নিয়ম— - | “বর্ষফলসাধনাৰ্থং বর্ষপ্রবেশসময়মাহগতা: সমা: পান্ধযুতা: প্রকৃতিস্থসমাগণাৎ। খবেদাপ্তঘটযুক্ত জন্মবারাদিসংযুতাঃ । অপ্রবেশে বারাদি: সপ্ততষ্টেছত্র নির্দিশেৎ।"(নীলকণ্ঠতাজিক) যাহার যে বৎসরে বর্ষপ্রবেশ নির্ণয় করিতে হইবে, তাহাৰ সেই বৎসরের পূৰ্ব্বে যত বৎসর অতীত হইয়াছে, তাহাতে স্বয় | চতুর্থাংশ যোগ করিয়া একস্থানে রাখিবে। পরে পুনরায় অতীত বর্ণাঙ্ককে ২১ দিয়া গুণ করিয়া গুণফলকে ৪• দ্বারা ভাগ করিলে স্বাহ ভাগফল লব্ধ হইবে,তাহাকে পূৰ্ব্বস্থাপিত অঙ্কের সহিত যোগ | কবিতে হইবে। এইরূপে যোগ করিলে যে মঙ্কশ্রেণী হইবে, । তাহাকে বার, দণ্ড ও পল বিবেচনা করিয়া তাহাতে জন্মবার, দণ্ড ও পল যোগ করিলে ষে বার, যত দও ও যত পল হইবে, । جيجيجيجيا জন্মদিবসে সেই বারে তত দগু ও তত পল সময়ে, বর্ষপ্রবেশ হইয়াছে, স্থির করিতে হইবে । বারের অঙ্ক যদি সাতের অধিক হয়, তাহ হইলে তাহাকে ৭ দিয়া ভাগ করিয়া অবশিষ্ট অঙ্ক গ্রহণ করিতে হইবে। ঐ অঙ্কের ১ রবিবার ২ সোমবার ৩ মঙ্গলবার ইত্যাদি বুঝিতে কুইবে। বর্ষপ্রবেশগণনার নানা প্রকার নিয়ম আছে। সেই সকল প্রণালী দ্বারাও বর্ষপ্রবেশ স্থির করা যায়। অন্তবিধ—প্রথমে ১ এক, ১৫ পনের, ৩১ একত্রিশ ও ৩০ ত্রিশকে গত বর্ধাঙ্কদ্বারা গুণ করিয়া চারিস্থানে রাথিতে হইবে, এইরূপে গুণ করিলে যে চারিট গুণফল হইবে, তাহার প্রথম অঙ্ককে বার, দ্বিতীয় অঙ্ককে দগু, তৃতীয় অঙ্ককে পল, চতুর্থ অঙ্ককে বিপল জ্ঞান করিয়া তাহাদিগের সহিত জন্মবার, দণ্ড, পল ও বিপল যোগ করিবে । পরে বিপলের অঙ্ককে ৬৯ দিয়া ভাগ করিয়া লন্ধাঙ্ক পলের সহিত যোগ করিতে হইবে । অবশিষ্ট অবশিষ্ট অঙ্ক যথাস্থানে রাথিয় দিবে। এইরূপে আবার পলাঙ্ককে ৬০ দিয়া ভাগ করিয়া লন্ধাঙ্ককে দণ্ডাঙ্কে ও দণ্ডাঙ্ককে ৬০ দিয়া ভাগ করিয়া লন্ধাঙ্ককে বারাঙ্কে যোগ করিয় অবশিষ্ট অঙ্ক পূৰ্ব্ববং যথাস্থানে রাখিয়া দিবে। এইরূপ গণনা দ্বারা যে কয়ট অবশিষ্ট অঙ্ক থাকিবে, তাহ। স্বারা বর্ষপ্রবেশের বার, দণ্ড, পল ও বিপল জানিতে পারা যাইবে । অন্তপ্রকার—৫ পাচ, ২ জুই, ও ৬ ছয়কে গতবর্ষাঙ্ক দ্বারা গুণ করিয়া যে তিনটী গুণফল হইবে, তাহাদিগকে তিন স্থানে রাগিয়া দিবে, তৎপরে প্রথম অঙ্ককে বার, দ্বিতীয় অঙ্ককে দণ্ড ও তৃতীয় অঙ্ককে পল মনে করিয়া তাহাদিগের সহিত জন্মবার, দণ্ড ও পল যোগ করিবে। পরে পলের অঙ্ককে ৪ দিয়া ভাগ দিতে হইবে । তৎপর লন্ধাঙ্ককে দণ্ডে এবং দগুস্কেকে ৪ দিয়৷ ভাগ দিয়া লব্ধাস্ক বারে যোগ করিবে ও বারাঙ্ককে ৭ দিয়া ভাগ দিতে হইবে । অবশিষ্ট অঙ্ক যথাক্রমে বর্ষপ্রবেশের বার, দণ্ড ও পল হইবে । অন্তবিধ -গত বর্ষাস্ককে ১০ • ৭ দিয়া গুণ করিয়া সেই গুণফলকে ৮• • দ্বারা ভাগ করিলে যাহা ভাগলব্ধ হইবে, তাহাই বর্ষপ্রবেশের বার, অবশিষ্ট অঙ্ককে ৬০ দিয়া গুণ করিয়া পুনৰ্ব্বার ৮০ • দিয়া ভাগ দিলে যাহা লব্ধ হইবে, তাহা দণ্ড, এইরূপ প্রণালীতে পলাদিও পাওয়া যায়। পরে উহার সতি জন্মবার, দণ্ড ও পলাদি যোগ করিলে বর্ষপ্রবেশের বার, দণ্ড ও পলাদি স্থিরীকৃত হয় । নিম্নোক্ত প্রকারেও বর্ষপ্রবেশ স্থির করা যায়। গতবর্ষাঙ্কে তাহার চতুর্থাংশ যোগ করিয়া বারস্থানে এবং ঐ গত বর্ষাস্ককে ২ দিয়া ভাগ করিয়া ভাগ লন্ধান্ধকে ওস্থানে এবং দেড়