পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/৩৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাশ্চাত্যদর্শন করিয়াছেন যে, অস্তনিছিত ‘আইডিয়া" বা ভাবের ( The true Bros or Idea ) প্রতি দৃষ্টি না রাখিলে কোন বিষয়ের প্রকৃত বিজ্ঞানসন্মত মীমাংসা হয় না । ফিডে (Phaedo) নামক গ্রন্থে আত্মার অমরত্ব সম্বন্ধে আলোচনা আছে। ফিলেবস্ (Philebus) नांभरु atइ ८धर? भद्रममजण कि ? ७हे डएड्व्र गैौगांश्नां করিয়াছেন এবং রিপবলিক ( Republic ) ও টিমিয়স্ (Timeus ) নামক গ্রন্থদ্বয়ে তিনি আপন রাজনৈতিক মতের चमरुङांग्नsiां यद्रिघ्नांरझन । প্রাচীন পণ্ডিতগণ প্লেটোর দর্শনকে বিভিন্ন প্রণালী অমুসারে বিভাগ করিয়াছেন। কিন্তু দার্শনিক আরিষ্টটল প্লেটোর দর্শনকে হ্যায়বিষয়ক (Dialectics or logic), জড়তত্ববিষয়ক ( Physics ) ও নীতিতত্ত্ববিষয়ক ( Ethics ) এই তিন ভাগে वेिख्ठऊ यद्विप्रो८छ्न । প্লেটো স্তায় বা তৰ্কশাস্ত্র (Dialectic) এই আখ্যা অতি বিস্তীর্ণভাবে প্রয়োগ করিয়াছেন। র্তাহার ন্যায়শন্ধ দর্শনশাস্ত্রের নামান্তর মাত্র । সময়ে সময়ে তিনি ন্যান্থশাস্ত্রকে দর্শনের শাখাস্বরূপ ধরিয়া লইয়াছেন। এই স্তীয়শাস্ত্রে প্লেটো বস্তুর ঐকৃত স্বরূপসম্বন্ধে আলোচনা করিয়াছেন (The Science of what absolutely is, or of the ideas) প্রকৃত জ্ঞানের লক্ষণ কি তাহীর বিচার এই অংশে করা হইয়াছে। দার্শনিক প্রোটাগোরসের মতে ব্যক্তিগত ইঞ্জিয়জGțR (Sensuous perception) z F5 sta i প্লেটো থিয়েট টস্ (Theatetus ) গ্রন্থে দেখাইয়াছেন যে, এরূপ প্রতিজ্ঞ সত্য বলিয়া স্বীকার করিলে অনেক অসামঞ্জস্ত উপস্থিত হয়। যদি ব্যক্তিগত জ্ঞানই সত্যের মাত্র স্বরূপ ধরিয়া লওয়া যায়, তাছা হইলে প্রত্যেক পশুর অসম্পূর্ণ জ্ঞানকে সত্য বলিয়া স্বীকার করিতে হইবে। প্রত্যেক ব্যক্তির জ্ঞান তাহার পক্ষে সত্য বলিয়। স্বীকার করিলে সত্যনিরূপণ বৃথা হয়। ভ্রম ৰলিয়৷ কোন পদার্থের অস্তিত্ব থাকে না । তত্বাতীত প্রোটাগোরস্ তাহার বিরুদ্ধমতাবলম্বীকে ভ্রান্ত বলিতে পারেন না, কারণ তাহার মতে সকল ব্যক্তির জ্ঞানই তাহার পক্ষে সত্য। দ্বিতীয়তঃ প্রেটাগোরসের মত স্বীকার করিলে ইন্দ্রিয়জনিত জ্ঞান (Perception) উৎপন্নই হইতে পারে না । ইঞ্জিয়জনিত জ্ঞান দ্রষ্ট এবং দৃষ্ট বস্তু উভয়ের সংযোগ হইতে উৎপন্ন হয়। কিন্তু প্রোটাগোরস বলেন, বাহবন্তু এত পরিবর্তনশীল যে, ইক্রিয়ম্বার। তাছাকে এক মুহূর্তের জগুও অনুভব করা যায় না, এরূপ হইলে প্তাহার তথাকথিত ইঞ্জিয়জ্ঞান প্রকৃত জ্ঞান নহে স্বীকার করিতে হইবে। তবেই ব্যক্তিগত ইন্দ্রিয়জজ্ঞানের স্বাধীনতা থাকিল কৈ ? তৃতীয়তঃ প্রোটাগোরস কি [ ৩৫২ ] זfידחס סאן* eषां८द्र श्रीमांप्नद्र हेऋिग्नछ छान छै९*प्त झग्न, ऊांश विtभंष করিয়া দেখেন নাই। আমরা পৃথক পৃথক্ ইঞ্জিয় হইতে যে সমস্ত বিষয় গ্রহণ করি, মন সেই সকল বিষয়ের সামঞ্জস্য বিধান করিয়া তাহাকে সেই বিষয়ের জ্ঞানে - পরিণত করে। শুদ্ধ ইঞ্জিয়বোধ হইতে জ্ঞান জন্মে না । সুতরাং ইন্দ্রিয়জজ্ঞানে জ্ঞাতবস্তুর প্রকৃত স্বরূপ আমরা জানিতে পারি না। প্রোটাগোরসের মত অমুসরণ করিলে সত্যের নির্ণায়ক আদর্শ (Standard of truth) •tfrțw •¡tra a1 1 qwfiw #fs. পরম্পয়া দ্বারা প্লেটে প্রোটাগোরসের মতের অসায়তা প্রতিপন্ন করিয়া ইঞ্জিয়জ জ্ঞান ও বিজ্ঞানের পার্থক্য নির্দেশ कब्रिग्नांtझ्न । প্লেটোর মতে জ্ঞানের পন্থী দ্বিবিধ-ইঞ্জিয়জ জ্ঞান ও বিজ্ঞান। ইঞ্জিয়জ জ্ঞান অস্থায়ী, পরিবর্তনশীল, বাহজগৎ হইতে গৃহীত বলিয়৷ ইহা অসম্পূর্ণ। স্বষ্টির এই পরিণাম যাহার উপর কাৰ্য্যকারী নয়, যtছ অপরিবর্তন, অনাদি, অনন্ত, সেই পদার্থের প্রতি বিজ্ঞানের (Rational thought) পৃষ্টি নিবন্ধ । বিশুদ্ধজ্ঞান বাহবস্তুর উপর নির্ভর করে না, বাহবস্তুর সংস্রববিহীন পরম পদার্থের জ্ঞানই বিশুদ্ধ জ্ঞান, সুতরাং প্লেটোর মতে জ্ঞান (Thought) (gr.: festtriz (Science) esten «st cm, wfR অর্থাৎ ইঞ্জিয়জ জ্ঞান অনিত্য জ্ঞান এবং বিজ্ঞান নিত্যজ্ঞান। প্লেটো-প্রবর্তিত ভাববাদ (Ideal Theory)। ইলীয়-দর্শনের অস্তবিরোধের সামঞ্জস্তের জন্ত প্লেটে তাহার ভাববাদের অবতারণা করিয়াছেন। ইলীয়দর্শন সম্প্রদায়ভুক্ত পণ্ডিতেরা বাহ জগৎ বা অসতের অস্তিত্ব অস্বীকার করিয়াও প্রকারান্তরে আবার তাহ স্বীকার করিয়াছেন। সক্রেটস্ তদীয় পারমিনাইডিস্ (Parminides) নামক গ্রন্থে উক্তমত সমালোচনাকালে বলিয়াছেন যে, অসতের (Non-being) এককালে অস্বীকার করা যায় না । ইলীয়-দর্শনের মতে সৎ একই ; বহর (Manifold, mnltiples exists) sif gr, afr ı *ärqq»fa এই এক (One) ও বহুর (Many) সামঞ্জস্ত বিধান করিতে পারে নাই। প্লেটো বলেন যে, উভয়কে বিচ্ছিন্ন করা যায় না, এক না থাকিলে বছর অস্তিত্ব জ্ঞান অসম্ভব ; বহু কি না জানিলে একের স্বরূপ জানা যায় না। যদি একের অস্তিত্ব স্বীকার করা যায়, তবে বছর অস্তিত্ব স্বীকার করিতে হইবে। ইলীয়দর্শনের মতে একই সৎ, একই নিত্য, বহু অনিত্য, উহা ভ্রম বা মায়া । কিন্তু প্লেটো যে প্রকারে এক ও বহুর সম্বন্ধ দেখাইয়াছেন, তাহাতে বহুকে অসৎ বলিয়া উড়াইয়া দিলে চলিবে না। সতের (Being) যেমন অস্তিত্ব আছে, সেইরূপ অদS, ভ্রম বা মায়া হইলেও এই মায়ারও অস্তিত্ব স্বীকার করিতে হয়। অসৎ না