পাতা:বিশ্বকোষ একাদশ খণ্ড.djvu/৬৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


খুরাণ ( নারদীয় ) পুরাণে পুরাণের পঞ্চলক্ষণ পান নাই ও ইহাকে পুরাণ বলিয়া স্বীকার করেন নাই। এখন দেখা যাউক, এই বৃহৎ পুরাণকে আমরা মহাপুরাণ বলিয়া স্বীকার করিতে পারি কি না ? মৎস্তপুরাণের মতে – “যত্রাহ নারদোধৰ্ম্মান বৃহৎকল্লাশুয়ানিহ । পঞ্চবিংশৎ সহস্রাণি নারদীয়ং তছুচাতে ॥" যে গ্রন্থে নারদ বৃহৎকল্পপ্রসঙ্গে নানাধৰ্ম্মকথা ৰলিয়াছেন, তাহাই ২৫• • • শ্লোকযুক্ত নারদপুরাণ । শিব উপপুরাণের উত্তরখণ্ডে আছে— "নারদোক্তং পুরাণন্তু নারদীয়ং প্রচক্ষতে।” নারদোক্ত পুরাণই নারদীয় নামে খ্যাত । উক্ত লক্ষণ অনুসারে আমরা যে নারদপুরাণ পাইয়াছি, তাহা নারদীয় মহাপুরাণ বলিয়া গণ্য হইতে পারে। অধ্যাপক উইলসন এই নারদপুরাণকে খৃষ্টীয় ১৬শ বা ১৭শ শতাবে রচিত ভক্তিগ্রন্থ বলিয়া অনুমান করেন ; কিন্তু খৃষ্টীয় ১১শ শতাব্দীতে আলবেরণী কর্তৃক নারদের উল্লেখ ও ১২শ শতাব্দীতে গোঁড়াধিপ বল্লালসেনের দানসাগরে এই নারদপুরাণ হইতে বচন উদ্ভূত হইয়াছে। বিশেষতঃ নারদপুরাণের বিষয় অালোচনা করিলে কেবল ইহাকে ভক্তিগ্রস্থ বলা যায় না, তান্ত্রিক বৈষ্ণবদিগের অনুষ্ঠানাদি ও নানা সম্প্রদায়ের দীক্ষাদির বিধানও এই পুরাণে বর্ণিত দেখা যায়। এই গ্রন্থের উত্তরভাগ আলোচনা করিলে বৈষ্ণবসম্প্রদায়-বিশেষের গ্রন্থ বলিয়া মনে হয় বটে, কিন্তু পূৰ্ব্বভাগের নানাবিষয় আলোচনা করিলে কোন বিশেষ সাম্প্রদায়িক গ্রন্থ বলিয়। মনে হয় না । ইছাতে যেরূপ সকল পুরাণের বিষয়ানুক্রম প্রদত্ত হইয়াছে, তাছাতে বোধ হয় যে, ই এক খানি ব্যতীত সকল পুরাণ বর্তমান আকার ধারণ করিবার পর এই পুরাণ সঙ্কলিত হইয়াছে। সুতরাং একসময়ে এই পুরাণ ষষ্ঠ বলিয়া গণ্য হইলেও এখন ষষ্ঠত্ববিহীন हहेम्नो८छ् । সম্ভবতঃ এই পুরাণের অধিকাংশ প্রাচীনাংশই বিলুপ্ত হইয়াছে। বিশেষরূপে তান্ত্রিক মত প্রচলিত হইবার পর, নারদপুরাণ বর্তমান আকার ধারণ করিয়াছে। আলবেরণীর ‘ভারত’ বর্ণিত তাছার সময়কার চিত্র হইতে জানা যায়, তৎকালে ভারতে তান্ত্রিক ও পৌরাণিক সকলপ্রকার দেবপ্রতিষ্ঠা, মন্ত্র ও দীক্ষাদি প্রচলিত ছিল, এই নারদ পুরাণ পাঠ করিলে এমন কোন বিশেষ কথা পাওয়া যায় না, যাহাতে তৎপরবর্তী কালের রচনা বলিয়া গ্রহণ করিতে পারি। ইতিপূৰ্ব্বে পদ্মপুরাণের আলোচনাস্থলে দেখাইয়াছি, এখনকার পদ্মপুরাণে যেরূপ পাষণ্ডিলক্ষণ ও মায়াবাদের নিন্দা [ ७२१ ] পুরাণ (মার্কণ্ডেয়) রছিয়াছে, নায়দপুরাণ সঙ্কলনকালে পল্পপুরাণ মধ্যে সেরূপ কোন বিষয় ছিল না, আরও দেখাইয়াৰ্ছ যে ঐসম্প্রদায় বা मांक्ष्वजत्थनttब्रब्र झां८ठहै *ांस७िणक्र१ ७ भांब्रांयांन-निनांब्र অংশ রচিত হইয়াছে। এরূপস্থলে খৃষ্টীয় ১১শ শতাব্দীর পূৰ্ব্বে নারদপুরাণ যে বর্ধমান আকার ধারণ করিয়াছিল, তাছাতে সন্দেহ নাই । বৃহন্নারদীয়পুরাণ নামেও একখানি বৈষ্ণবগ্রন্থ মুদ্রিত হইআছে। এখানি মহাপুরাণ নহে, উপপুরাণশ্রেণীতে গণ হইতে পারে। লঘুবৃহন্নারদীয়পুরাণ নামেও একখানি ক্ষুত্র পুথি পাওয়া যায়। এখানি পুরাণ কি উপপুরাণ উভয় শ্রেণীতে গণ্য হইবার যোগ্য নহে । BBBDDDS DDDBBBBS BB BBBBBBS BBBDDDDS शांप्रशशिद्रिभाझाज्रा, खैौकूरुभ्माशंग्रा, मकःण*णठिtराॉज ३ठानि नांभtषग्र কএকখানি পুধি নারদপুরাণের অন্তর্গত বলিয়া প্রচলিত । ৭ম মার্কণ্ডেয়-পুরাণ । ১ মার্কণ্ডেয়ের সমীপে জৈমিনির ভারতবিষয়ক প্রশ্ন, তাহার উত্তরে মার্কণ্ডেয়ের বমুশাপকথন, ২ কন্ধর ও বিহ্ব্যক্রপের যুদ্ধবর্ণন, চটকের উৎপত্তিকথন, ৩ শমীকমুনির নিকটে পিঙ্গলক্ষাদি বিহগগণের শাপকারণবর্ণন, তাহাদের বিন্ধ্যাচল প্রাপ্তি, ৪ বিষ্ক্যাচলস্থ পক্ষিচতুষ্টয় সমীপে গমনপুৰ্ব্বক জৈমিনির প্রশ্নচতুষ্টয়-কথন, তদুত্তরে তাহার প্রতি চতুবুছিাবতারবর্ণন, ৫ দ্রৌপদীর পঞ্চস্বামীর কারণ, ইক্সবিক্রিয়াকথন, ৬ বলদেবকৃত ব্ৰহ্মহত্যার কারণ-কথন, ৭ বিশ্বামিত্রের ক্রোধে হরিশ্চঞ্জের রাজচুতি, দ্রৌপদীর বিবরণ, ৮ হরিশ্চন্ত্রের উপাখ্যান, ৯ আড়িবকযুদ্ধপ্রস্তাব, ১• পক্ষিগণ সকাশে জৈমিনির প্রাণিজন্মাদি বিষয়ক প্রশ্ন, ১১ পিতৃ-লমীপে পুত্রের নিষেকাদি বৃত্তান্তবর্ণন, ১২ মহারেীরবাদি নরকবৃত্তান্তবর্ণন, ১৩ বৈগুরাজ এবং যমপুরুষসংবাদ, ১৪-১৫ বৈপ্তরাজপ্রতি যমপুরুষের কৰ্ম্মফলকথন, বৈশুরাজের স্বর্গগমন, ১৬ পতিব্ৰতামাহাত্মা, অনস্বয়ার বরলাভ, ১৭ দত্তাত্রেয়ের উৎপত্তি, ১৮ কাৰ্ত্তীর্যার্জনের প্রতি গর্গের উপদেশ কথনপুৰ্ব্বক দত্তাত্রেয়-বৃত্তাস্ত-বর্ণন, ১৯ দত্তাত্রেয় এবং কীৰ্ত্তবীৰ্য্যের সংবাদ, ২৭ নাগরাজtশ্বতরসকাশে তাছার পুত্র কুবলয়শ্বের বৃত্তান্তবর্ণনা প্রারম্ভ, ২১ কুবলয়শ্বের স্ববাণবিদ্ধ পাতালকেতু দৈত্যের অনুসরণে পাতালে গমন, তথায় মদালসার পাণিগ্রহণ, সসৈন্ত পাতালকেতুৰ, ২২ মালসী-বিয়োগ, ২৩ অশ্বতরের তপশ্চরণ দ্বারা মদালসাগ্রাপ্তি, কুবলম্বাশ্বের নাগরাজভবনে গমন, ২৪ কুবলয়শ্বের পুনরশ্বতর সকাশে মদালসা লাভ, ২৫ মদালসার বালোল্লাপন, ২৬ মদালসার গুরত্রয়ের তপশ্চরণ, পুত্ৰ অলর্কের