পাতা:বিশ্বকোষ পঞ্চম খণ্ড.djvu/১৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


”مبر ”r [ 58% গঙ্গণ ১ আকাশগামী । (পুং) ২ স্বৰ্য্যাদিগ্রন্থ। “বালৰং বুদ্ধতা । গগৃঘ (পুং) হাস। * বা যদি গগনসদা; জন্মকাল নরাণাং ” (জাতকালঙ্কার।) ৩ দেবতা । “বিন্মেরান গগনসদ করোত্যমুন্সিন।” ( মাঘ ) গগ()নসিন্ধু (স্ত্রী) গগনত সিদ্ধ ওতং মদাকিনী। “গগনসিন্ধুফেনপটলজালান্তরস্ত।” ( কাদম্বরী । ) গগ(ণ)নাঙ্গমা (স্ত্রী) গগনাগত অঙ্গনা। দিব্যাঙ্গন, অঙ্গর। १शनांकिएलोझ (शै) 8रुषदिएशष। १शन (अज), इर्द्रौতকী, আমলকী, বহেড়া, লৌহ, কূটজ, শুঠ, পিপুল, মরিচ, পারা, গন্ধক, বিষ, সোহাগ, সাচিক্ষার, দারুচিনি, এলাচ, তেজপত্র, বঙ্গ, জীর, কৃষ্ণজীরা,ইহাদের প্রত্যেক চূর্ণ সমভাগে লইয়া যত পরিমাণ হইবে, তাহার অৰ্দ্ধ চিতাচুৰ্ণ মিশাইবে, ইহাকে গগনাদিলোঁহ বলে। দুই তোলা মাত্রায় মধুর সহিত লেহন করিলে সোমরোগ ও মূত্রাতিসার ভাল হয়। ( রসেন্দ্রসারসংগ্ৰহ ) গগনাদিবটী (স্ত্রী) ঔষধবিশেব। ইহার প্রস্তুতপ্রণালীগগন (অভ্র), রসসিন্দুর, জাম্র, মুণ্ডলৌহ, তীক্ষলোঁহ, স্বর্ণমাক্ষিক, গন্ধক ও পারদ মিশাইয়। যষ্টিমধুর কাথে পেষণ করিবে। বাসক, দ্রাক্ষ ও ভূমিকুয়াও ইহাদের প্রত্যেকের রসে এক একদিন মৰ্দ্দন করিবে। অৰ্দ্ধতোলাপরিমিত বট প্রস্তুত করিতে হয়। ইহাকে গগনাদিবট বলে । স্কৃত ও মধুর সহিত সেবন করিলে কঠিন বাত, পিত্তরোগ, ক্ষয়, ভ্রম, মদ, কফ, শোষ, দাহ ও তৃষ্ণ বিনষ্ট হয়। (রসেশ্রমা” ) গগনাধর্গ (পুং) গগনাধীন গচ্ছতি গম-ড। সুৰ্য । (হেম" ) গগনাম্বু (কী ) গগনস্তান্থ ওতৎ। দিব্যোদক, মেঘনিঃস্থত জল, চলিত কথায় বৃষ্টির জল বলে। ইছার গুণ ত্রিদোষয়, বলকর, রসায়ন, রক্ষোয়, শীতল, আহলাদকর, জ্বর, দাহ ও বিষনাশক । বৃষ্টির জলের স্বাভাবিক এই সকল গুণ থাকিলেও অপবিত্র স্থানে বা অপবিত্র পাত্রে পতিত হয় বলিয়া সেই জল পান ও সেই জলে স্নান অতিশর অহিতকর ও অব্যবহার্য্য। পাত্রের দোব গুণ অনুসারে জলেরও দোব বা গুণ হইয়া থাকে। (স্বশ্ৰত সুত্র ৪৫ আঃ) গগনেচর (পুং) গগনে চরতি চর্ট (চরেষ্ট । পা ৩২১৬ ) অলুক্‌ সমাস । ১ দেবতা । ২ সুৰ্য্যাদিগ্রহ। ৩ রাশিচক্র । (ত্রি) ৪ গগনচারী, যাহারা গগনপথে গমন করে। “তংিস্তু কথিতে মাত্র। কারণে গগনেচর।” (ভারত *॥२१॥२¢) প্রীলিঙ্গে টাপ্ত হয়। গগনোলক (পুং গগনে উন্মুক ইব। মঙ্গলগ্রহ। (হারবিল) शैभन्नैौ (शर्भद्री ५कण) बज्र घड़ी, इइ९ रुणनेौ । # (স্ত্রী) ধাৰ্য। (মিন্ট)। গঙ্গক, প্রসিদ্ধ কবি ক্ষেমেন্ত্রের গুরু ও একজন কবি । গঙ্গক (স্ত্রী ) গঙ্গা স্বার্থে কন্‌টাপ্ত আকারস্ত হ্রস্বত্বং (অভা ষিত পুংস্কাচ্চ। প। ৭৩৪৮) গঙ্গা । গঙ্গহরি, তত্ত্বদীপিকা নামে আনন্দলহরীর টীকাকার । গঙ্গা (স্ত্রী ) গম্যতে ব্ৰহ্মপদমনয়া গম্গন (গম্যযোঃ । উপ্‌ >। २२२) নিঘণ্ট মতে গচ্ছতীভি গম-গন্‌টাপ । ১ স্বনামপ্রসিদ্ধ নদী ও তদধিষ্ঠাত্রী দেবী। ইহার পর্য্যায়—বিষ্ণুপদী, জহ তনয়, স্বরনিয়গী, ভাগীরথী, ত্রিপথগা, ত্রিস্রোতাঃ, ভীষ্মস্থ, অর্ঘ্যতীর্থ, তীর্থরাজ, ত্ৰিদশদর্ঘিকা, কুমারস্থ, সরিদ্বর, সিদ্ধাপগ, স্বর্গাপগ, স্বরাপগ, স্বাপগ, ঋবিকল্প, হৈমবর্তী, স্বর্বাপী, হরশেখর, মুরাপগা, ধৰ্ম্মদ্রবী, মুধা, জহ, কন্যা, গান্দিনী, রুদ্রশেখর, নন্দিনী, অলকননা, সিতসিন্ধু, অধ্বগা, উগ্রশেখরা, সিদ্ধসিন্ধু, স্বর্গদরিদ্বর, মন্দাকিনী, জাহ্নবী, পুণ্য, সমুদ্রসুভগা, স্বর্নদী, স্বরদর্থিক, মুরনদী, স্বৰুধুনী, জ্যেষ্ঠ, জহ,স্বত, ভীষ্মজননী, শুভ্র, শৈলেন্দ্রজ, ভবায়না। বৈদ্যক রাজনির্ঘণ্ট মতে ইহার জলের গুণ শীতল, স্বাদু, স্বচ্ছ, অত্যন্ত কুচিকর, পথ্য, পবিত্র, পাপনাশক, তৃষ্ণ ও মোহনাশক, দীপন এবং প্রজ্ঞাবৃদ্ধিকারী । ( রাজনি" ) গঙ্গা অতি প্রাচীন পুণ্যসলিলা নদী, হিন্দুগণের দৃঢ় বিশ্বাস যে পৃথিবীর সকলতীর্থ হইতে গঙ্গা প্রধান, গঙ্গায় মৃত্যু হইলে মনুষ্য হইতে নিকৃষ্টজাতি কীট পৰ্য্যন্তও মুক্তি লাভ করিতে পারে। ঋগ্বেদে (১০।৭৫৫), কাত্যায়ন শ্রেীতস্থত্রে, শতপথব্রাহ্মণ প্রভৃতি প্রাচীন গ্রন্থে গঙ্গা নামের উল্লেখ দেখিতে পাওয়া যায়। পুরাণ, উপপুরাণ, ইতিহাস প্রভৃতি প্রায় সকল প্রাচীন গ্রন্থেই গঙ্গার বিষয় অল্পবিস্তর লিখিত আছে । বাল্মীকিরামায়ণের মতে গঙ্গা হিমালয়ের কন্যা, সুমেরুতনয়৷ মনোরম বা মেনুর গৰ্ত্তে ইহার উৎপত্তি হয় । দেবগণ কোন কাৰ্য্যবশতঃ হিমালয়ের নিকট হইতে ইহাকে ভিক্ষা করিয়া লইয়াছিলেন (১)। তদবধি ইনি ব্ৰহ্মার কমণ্ডলুতে বাস করিতে লাগিলেন। এদিকে বৃত্ত সগরতনয়গণ মহামুনি কপিলের শাপে ভস্মীভূত হইলে সগরবংশীয় রাজগণ গঙ্গাকে পৃথিবীতে আনিবার যত্ন করিতে লাগিলেন। কিন্তু অনেকদিন পর্য্যস্ত র্তাহীদের চেষ্টায় কোন ফল হইল না। অনেক দিন পরে সগরবংশীয় ভগীরথ মন্ত্রীদিগের উপরে রাজ্যভার অর্পণ করিয়া প্রথমে ব্ৰহ্মার তপস্ত করেন। র্তাহার (४) कृउिपागै ब्राभाइt" बास् cश्षत्र५ विक्इ गश्डि विदार निष्ठ शत्राप्क ज्ञश्झ। यान। गाव१ cभनका भत्राक দেখিতে স পাইয়া শাপ **न, डlहाँcठरै गंज जशवर्छी दरेब्राप्इन ।