পাতা:বিশ্বকোষ পঞ্চম খণ্ড.djvu/২৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গাইকোবাড় --- ------ - গহ্বরিত্ব (ত্রি ) গহবরং জাতমন্ত ইতচ। ১ গুপ্ত, লুক্কায়িত । ২ ক্ষুদ্ধ, নিস্তব্ধ । “যাজ্ঞসেন্ত বচঃ শ্ৰুত্বা কৃষ্ণে গহারিতেtছুভবৎ ” (ভারতসভা") গহবরেষ্ঠ (ত্রি ) গহবরে তিষ্ঠতি স্তা-ক। যে গহবরে লুকায়িত । গ! ( স্ত্রী) ১ গাথা । ( গাত্রশদের অপভ্রংশ ) ২ শরীর, দেহ। “মহাকোপে কম্পমান হয় সৰ্ব্ব গ৷ ” কবিকঙ্কণ । গাই (গাভি শব্দের অপভ্রংশ) গৰী, মাদি গোরু। গাইকোবাড়, ( গাইকবাড়, গুইকুয়ার, ) বরদার রাজবংশের নাম । যিনি রাজা থাকেন, তিনিই এই নামে অভিহিত হন । “সেন খাস্ খেল সম্সেৱ বাহাদুর” নামে ইহাদের অপর একটা উপাধি আছে। তাহার উপর ১৮৭৭ খৃষ্টাবে ১লা জানুয়ারি দিল্লির দরবার হইতে “ফরজন্দ-ই-খাস দৌলত-ই-ইংলিসিয়া” উপাধি এই বংশের উপর দেওয়া হয় । ইংরাজ গবর্মেটি ২১টা তোপ ছুড়িয়া গইকোবাড়ের সম্মান করিয়া থাকেন । T দমাজী গাইকোবাড় হইতে এই বংশেয় উৎপত্তি । দমাজী | মহারাষ্ট্ররাজ সাহুর অধীনে কৰ্ম্ম করিতেন । তাহার সেনাপতি খণ্ডেরা ও ধাধারাই বালাপুরের যুদ্ধে দম্tঞ্জীর বীরত্ব দেখিয়া সস্তুষ্ট হন এবং তাহার পদোন্নতি করিয়া দিবার জষ্ঠ রাজাকে অনুরোধ করেন । তদনুসারে দমার্জী দ্বিতীয় সেনাপতির পদ ও সম্সের বাহাদুর উপাধি লাভ করিলেন । দমার্জীর মৃত্যু হইলে তাহার ভ্রাতুষ্পত্র পিলাজী রাও গাইকোবাড় পদে অভিষিক্ত হয়েন ৷ খণ্ডেরাওর পুত্র ত্র্যম্বকরাও ধাবারাই ও পিলাজী উভয়ে মিলিত হইয়া অন্তান্ত মহারাষ্ট্রসামস্তদিগের সহিত পেশবার বিরুদ্ধে যুদ্ধযাত্রা করেন । ১৭৩১ খৃষ্টাব্দে বরদা-নগরের নিকট একটা যুদ্ধ হয়। যুদ্ধে ত্র্যম্বকরাও পরাজিত ও নিহত হইলেন। পেশব। র্তাহার শিশু সস্তান যশোবস্ত রাওকে সেনাপতির পদে নিযুক্ত করিয়া পিলাজী গাইকোবাড়কে পূৰ্ব্বমত মুতালেক বা সহকারী সেনাপতিপদে নিযুক্ত করিয়া সেন খাস খেল উপাধি দিলেন ও যশোবন্ত রাওর প্রতি গুজরাটের সমস্ত কাৰ্য্যভার অর্পণ করেন । শর্ত ছিল যে রাজস্বেয় অৰ্দ্ধেক অংশ পেশবাকে দিতে হইষে । এই সময় দিল্লির সম্রাটু ঐ প্রদেশের কভকগুলি রাজ্যের কল্প পেশবকে দিতেন। দিল্লির সম্রাট তাহাকে কৰ্ম্মচু্যত করিয়া যোধপুররাজ অভয়সিংহকে তৎপদে নিযুক্ত করেন। এই ব্যাপার লইয়া পিলাল্পী গাইকোবাড় সম্রাটের বিপক্ষে অস্ত্ৰধারণ করেন ও র্তাহার সেনাদিগকে যুদ্ধে পরাস্ত করিয়া অনেক স্থান অধিকার V [ ২৯৭ ] ጫP: গাইকোবাড় করিয়া লন। অভরসিংহ দেখিলেন যে পিলাজী সাধারণের প্রিয়পাত্র, তাহাকে যুদ্ধে পরাস্ত করা সহজ হইবে না। এই বিবেচনা করিয়া ১৭৩২ খৃঃ অব্দে গোপনে দম্য দ্বারা তাহার প্রাণ বিনাশ করিলেন । র্তাহার পুত্র দমাজী গাইকোবাড় পদে অভিষিক্ত হন। এদিকে সেনাপতি যশোবন্ত রাও বয়ঃপ্রাপ্ত হইলেও কার্য্যভার বহনে অসমর্থ হওয়ায় গাইকোবাড়বংশের উপরই এই ভার অর্পিত হইল। ১৭৩২ খৃষ্টাব্দে পিলীর ভ্রাতা মহাজী বরদানগর অধিকার করেন, সেই অবধি বরদানগর গাইকোবাড়-বংশের রাজধানী হইয়া আদিতেছে। তারাবাই যখন আপনার নীতি সেতারার রাজাকে বালtঞ্জী বাজিরাও পেশকার অধীনতা হইতে মুক্ত করেন, তখন দমজী গাইকোবাড় তাহার সহায়তা করিয়াছিলেন । পেশয। সেই জন্ত তাহাকে বিশ্বাসঘাতকতাপুৰ্ব্বক ধরিয়া আলিয়। রাখিলেন। শেষে দমার্জী গুজরাটের বাকি খাজনাস্বরূপ ১৫ লক্ষ টাকা দিতে স্বীকৃত হইলে পেশবা র্তাহাকে ছাড়িয় দেন । সেই সময় একটী লেখাপড়াও হয় যে রাজ্যের যাহা অধিকৃত আছে ও য{হ অধিকৃত হইবে, তাহার অৰ্দ্ধেক পেশবাকে দিতে হইবে। কাঠিবtড় প্রদেশে গইকোবাড় যে সকল স্থান অধিকার করিয়াছিলেন, পর বৎসর পেশবা তাহার কতক অংশ গ্রহণ করিলেন । গইকোবাড় পেশবাকে সৈন্য সাহায্য করিতে প্রতিশ্রত হইলেন । তাহার পর পেশবা ও গাইকোবাড়ের মিলিত সৈন্য লইয়া রাঘব গুজরাট অধিকার করিতে গমন করিলেন । ১৭৫৫ খৃষ্টাব্দে আহ্মদাবাদ দিল্লির শাসন হইতে পৃথক হইল । পেশব ও দমাজী উভয়ে ভtহার রাজস্ব ভাগ করিয়া লইলেন । কিন্তু রাজ্যের অধিকাংশই পেশবার হস্তগত হইল। ১৭৬১ খৃষ্টাব্দে ৭ই জানুয়ারি, আহ্মদশাহ আবদলির সহিত পাণিপথে যে যুদ্ধ হয়, তাহাতে মহারাষ্ট্র পক্ষে দমালী নিজ সৈন্য লইয়া যুদ্ধ করিয়া বিলক্ষণ বীরত্ব প্রকাশ করিয়াছিলেন । এই যুদ্ধে অনেক মহারাষ্ট্রধীর ধরাশায়ী হইয়াছিলেন । দমজী অল্পসংখ্যক সৈন্য লইয়া গৃহে প্রত্যাগমন করেন। সেই অবধি তিনি আর বড় যুদ্ধবিগ্রহে ব্যাপৃত হন নাই, নিজ রাজ্য রক্ষার্থ ব্যাপৃত ছিলেন। এই সময় তিনি গুজরাটের উত্তরদিকে বাধানপুর ব্যতীত অপর সমস্ত স্থান জোয়ান মরদখা বাবির নিকট হইতে দখল করিলেন এবং এদরের রাঠোরবংশীয় রাজাদিগকে করদ করিয়া রাখিলেন। এইরূপে দমাজী একজন পরাক্রান্ত নরপতি হইয়া উঠিলেন। পেশব মধুরাওর সেনাপতি