পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তদশ খণ্ড.djvu/১৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


লঙ্কামরিচ ‘লঙ্কা’ বলে। এর্থমও এই দ্বীপের উত্তরপশ্চিমাংশে কাঞ্চলগিরি ২ শাখা । ৩ শাকিনী । ৪ কুলট । ( মেদিনী ) ৫ খান্তSLLLL LLS BBBB S DBD DBBB BBBS BBBS BBBSBBBBBBS BBBBS BBBBB S DDDD BB BBBBBS BBBBB SBBBBS BB BBBBBS BSBBBSBBBS BBBBS BBBBBB BB SBBBBS বর্তমান সুমাত্রাদ্বীপকে বুৰাইত। মুমাত্র, ববীপ ও ক্লোরিস | লঙ্কা (দেশজ ) কু-মরিচ। [ লঙ্কামরিচ দেখ। ] DBB BBBBBB BBB BBB BBBB BBBB BBBBBB DDBBD SJH HBB BBB DDD DD DDS DDDDS DDDBBBS BD BBB BBB BBS BBBBB BBS DBBBS BBB BBBBBBB BB ttt BBBBBB S DBB BD BBB DDB BBB BBBB BBBBB BBBS BBBBB BBB BB BBB BBBB SBB BBS DDD BBB BBB BBBB BBB BBBB BBBB BBBS DDBBB SJSDDD BBBBS BBB SBBBBS DDD BBBBBBB DDBBS BBB BBBBB BB BBBS DDBBBS BBB BBBBS BBBBB BBB BBS লঙ্কা [ ১৫e ] গম্ভবতঃ "গঙ্কাই’ লাগর নামে পরিচিত হইয়াছে। ৰীিও এই সুমাত্রাদ্বীপে হিন্দুজাতি এখনও বাস করেন না, ধৰিও হিঙ্গুনিশ্বিত মন্দিরাদির কিছুমাত্র ধ্বংসাবশেষ দৃষ্ট হয় না, কিংবা ইতিহাসেও লিখিত নাই,কিন্তু এমন অনেক প্রমাণ আছে, ধারা আমরা মুক্তকণ্ঠে স্বীকার করিতে পারি যে শ্রীরামচন্ত্রের জাগমনের পর হইতে ভারতবাসী হিন্দুগণ স্বর্ণলাভের আশায় এই স্থানে আগমন করিতেন । সুমাত্রার মধ্যস্থল হইতে প্রাচীন হিন্দু রাজগণের নানা শিলালিপি আবিষ্কৃত হইয়াছে, তাহাতেও হিন্দুপ্রাধান্তের যথেষ্ট নিদর্শন রহিয়াছে। এই দ্বীপে এখনও মঙ্গল, ইন্দ্রগিরি, ইন্দ্রপুর ইত্যাদি হিন্দুএাত্ত সংস্কৃত নাম নগর ও নদীবিশেষে রহিয়াছে। এখন গলরজাতি যে স্থানকে আপনাদিগের আদিজন্মভূমি বলিয়। গৌরব করিয়া থাকেন, পুথিবীর অপর সকল স্থান অপেক্ষা যে স্থানে সমধিক সুবর্ণ উৎপন্ন হইত, এখনও সেই স্বর্ণময়ী ভূমির নিকট দিয়া ইত্ৰগিরি নামে নদী প্রবাহিত হইতেছে । উক্ত নামগুলি পাঠেও স্পষ্টই হৃদয়ঙ্গম হয়, যে এক সময়ে হিন্দুগণ এই সুমাত্রাদ্বীপে জালিয়া উপনিবেশ করিয়াছিলেন । এই দ্বীপে অলকেশ্বর নামক শিবলিঙ্গ বিদ্যমান আছেন। (সস্থাত্রিখণ্ড ১৯১৪ )

  • अतt७भूब्राc१ श्झांझे ‘कांकन-ोम' मां८भ मलग्नषैौt°ब्र भtषाझे ७ख् इहेब्रांtइ । “छथ। कांकनणांनश भलग्नछां*ग्नष्ठ श् ि॥” उष्कt७ ५७ ज:

+ wgभद्र नग्न श्रङ ५३ लझाईष्ण जन्मएकई चर्मलाछांनान्न श्रममांणभन DDDD S DBBBBB DtBBBD DDBBB BBD DD BB कछकहीं अमोमेिउ हईtङtझ् ॥ “छविलाढि कालो कारण शब्जिा भूणमामश: । cङ३झ पछि tलltछन (क्रुङ झर्नमात्र छ ।s• নিত্য:ঞ্চবাগমিধৰি তাঙ্ক রক্ষাকৃতৎ স্তরম্ "৪১ সাগরখও ১৪অঃ ब्रांब चर्गीरद्राशन कब्रिtण गब्र ठ९भूज दू५ लको आश्रमम कब्रिब्राझिरजन, छाश* आजवष:e $ब्रिषि७ इशेन्नारङ । [ मानब्रषत sv* ज: ००-०२ aাৰ দেখ }। এই হুমাত্রায় পাৰই স্থপৎ স্নামে একটি দ্বীপ আছে, উহ ज्ञाथांझगाउ ब्रनाक दीन दणिशश् च इनिउ श्छ । চিকিৎসা ও নিবন্ধসংগ্রহ নামক ছুইখানি বৈস্তকগ্রন্থ তিনি রচনা করিয়াছিলেন বলিয়া প্রসিদ্ধি । লঙ্কাপিকা, লঙ্কায়িকা (স্ত্রী) পৃষ্ণ, চলিত পিড়িং শাক । ( শব্দরত্ব • ) লঙ্কোপিকা পাঠও পাওয়া যায়। লঙ্কামরিচ, স্বনামপ্রসিদ্ধ ক্ষুপবিশেষ। ইহার ফল বা বীজকোষ ‘লঙ্কা’ নামে প্রসিদ্ধ । * ভারতবর্ষের সমতলক্ষেত্রে, কাশ্মীরের নিম্নতর শৈলমালাসমুহে এবং চন্দ্রভাগ-প্রবাহিত উপত্যক ভূমির ৬৫•• ফিন্টু উচ্চ স্থানেও এই বৃক্ষ উৎপন্ন হইতে দেখা যায়। পৰ্ব্বতঙ্গাত লঙ্ক স্বভাবতঃই বেশ ঝাল হইয়া থাকে। কাশ্মীরের পাৰ্ব্বত্যপ্রদেশে ৭ প্রকার লঙ্কা দেখিতে পাওয়া যায়। দৈর্ঘ্য, গঠন ও বর্ণ দ্বারা উহাদের পার্থক্য উপলব্ধি হয়। বাঙ্গালায়ও ৫ট বিভিন্ন জাতীয় লঙ্কা জন্মে। কিন্তু পাৰ্ব্বতীয় লঙ্কার দ্যায় তাহা ঝাল হয় না। লঙ্কার আকৃতি প্রধানতঃ লম্বা, কতকগুলি চেপ্টা, চৌকা, বক্রাকার, তীক্ষমুখ, দ্বিচ্ছিদ্রক, মক্ষণগাত্র বা অমসৃণ গাত্রবিশিষ্ট, বর্ণ প্রায়ই লোহিত, তবে কোন কোন স্বানে শ্বেত, হরিদ্রাবর্ণ অথবা লাল, সবুজ সাদা বা হরিদ্রাবর্ণ যুক্তও দেখা যায়। ভারতের বিভিন্ন স্থানে এবং যুরোপীয় রাজ্যসমূহে লঙ্কামরিচ বিভিন্ন নামে পরিচিত। হিন্দী—মটশ, বাঙ্গরু, লালমরিচ, , মর্চ, মির্চ, গাছমিয়চ, ; বাঙ্গালা-লালমরিচ, লঙ্কামরিচ, গাছমরিচ ; ভোট-স্বরু-ফমশা ; কুমায়ুন—মাটিংসা-বঙ্গরু ; কাশ্মীয়—মিৰ্ত্তজ-আ-বজুন, মিক্‌চ-বায়ুম্ ; গুর্জর-লালমিরিচ, মন্ত্রচু; কচ্ছ--দ্বিচু ; মরাঠী—মিত্রশিঙ্গা ; তামিল-মিলগাই, মূলাগাই, মোল্লখে, মোল্লাগু ; তেলগু—মিরপাকয়, মেরপুকাই ; মলবায়—কপু-মোলেগু, কঙ্গল-মেলক ; কণাড়ী—মেনসিনাকারি ; সংস্কৃত-মরিচফলম্ ; আরব-ফিফিলে, অহমুর ; পারস্ত—ফিলফিলে-দুখ, পিলপিলে-মুখ ; শিঙ্গাপুর-মিরিশ, স্বত-নিরিশ ; ব্ৰহ্ম—নায়ুণি, না-যোপ , ইংরাজী—Chilly. vztst–Poivre de Guinée, poivre du Brésil,