পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তদশ খণ্ড.djvu/২৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


লামা , [ ২৩৯ ] חנןדא & সমসাময়িক। অবশিষ্ট লামাগণ ব্ৰহ্মচৰ্য্যাৰলম্বী। ধৰ্ম্মরাজ গ্রীষ্মকালে তষিছে দুর্গে অবস্থান করেন। ঐ প্রাসাদ প্রস্তরনিৰ্ম্মিত এবং সাত তোলা উচ্চ। এখানে প্রায় ৫ শত বৌদ্ধধতির বাস আছে। নেপালবাসী লামাদিগের উপর ইনিই কর্তৃত্ব করিয়া থাকেন। গোর্থ গবমেণ্ট তাহার বিরোধী নহেন। খন্ধপ্রদেশবাসী মোঙ্গলীয়দিগের প্রধান ধৰ্ম্মাধ্যক্ষ উৰ্গা-কুরেন নামক স্থানে বাস করেন, র্তাহারা জেৎমুন-দম্প নামে পরিচিত। খন্ধবাসী মোঙ্গলগণের বিশ্বাস যে, সুপ্রসিদ্ধ ঐতিহাসিক লামা তারনাথ তাহাজের জেৎসুন দম্পদিগের শরীরে পুনঃ পুনঃ অবতীর্ণ হইয়া ধৰ্ম্মবিস্তার করিতেছেন। মোঙ্গলীয়দিগের উর্গ সঙ্ঘারাম প্রথমে শাক্যসম্প্রদায়ভুক্ত ছিল, পরে উহা গে-লুপ সাম্প্রদায়িক মঠাশ্রমে পরিণত হইয়াছে। সম্রাট, কঙ্গ-হির রাজত্বকালে (১৬৪২-১৭২৩ খৃঃ) পীত নদী তীরস্থ কোকেী-থোতোন নগরে ধৰ্ম্মাচাৰ্য্য জেৎসুন-দম্প বাস করিতেন। ঐ সময়ে কালাক বা সি উথ জাতির সহিত খহুদিগের বিরোধ উপস্থিত হয়। খন্ধগণ পরাভূত হইয়া চীনরাজের আশ্রয় গ্রহণ করে। তখন কালমাকৃগণ চীনসম্রাটের নিকট জেৎসুন দম্প ও তাহার ভ্রাতা রাজকুমার তুশ্চেভূ খাকে প্রতাপণ করিবার প্রার্থনা জানাইলেন। সম্রাট উভয় ভ্রাতাকে কালমাকৃলিগের হন্তে প্রত্যপণ করিতে অস্বীকৃত হইলে, তাহার দলইলামাকে মধ্যস্থ মানিলেন। দলই লামা বা তাহার প্রতিনিধি বিচার করিয়া উক্ত রাজকুমারদ্বয়কে প্রত্যপণের আদেশ করিলেন, ইহাতে সম্রাটের সহিত কালমা জাতির যুদ্ধ বাধিল । এই সময়ে একদিন সম্রাটু জেৎস্থন দম্পের সহিত দেখা করিতে যান এবং তৎকর্তৃক অপমানিত হইয় তাহার শিরচ্ছেদ করিতে আদেশ দেন। এই ঘটনায় খহুগণ বিদ্রোহী হইয় উঠে এবং জেৎসুন দম্প তাহার আকারহণত্যার প্রতিহিংসাসাধনার্থ অবতীর্ণ হইয়াছেন বলিয়া ঘোষণা করেন। চীনসম্রাট বিদ্রোহের স্বচল দেখিয় দলই লামার শরণাপন্ন হইলেন। তাহার বিচারে স্থিরীকৃত হইল যে, জেৎস্কন স্পের পরবর্তী অবতারগুলি তিব্বতেই হইবে। খন্ধবাসিগণ ঐ সময় হইতেই স্বদেশপ্রেমিক cथ* भूब्रश्ठि श्रेष्ठ दक्षिठ इहेण । এক্ষণে মধ্য বা পশ্চিম তিব্বত হইতেই সাধারণতঃ জেংস্কন স্বম্পের অবতার দাৰিন্থত হইয়া থাকেন। বর্তমান জেংস্কন পদার্পণ করিতেই খন্ধের উদ্ধাকে উর্ণায় লইয়া যায়, সঙ্গে এক জন পেৰ গামার শিক্ষকরূপে গমন করেন। অবতাররূপে পূজ্য পূৰ্ব্বোক্ত ধৰ্ম্মাচাৰ্য্যগণ ব্যতীত তদপেক্ষ ইনপ্রভাবসম্পন্ন আরও কতকগুলি লামাচাৰ্য্য আছেন, তাহারা জ্যোতিঃপ্রাপ্ত বা দেহান্তরধারী বলিয়া পুঞ্জিত। এই শ্রেণীর লামাচাৰ্য্য তিব্বতে ৩৯ট, উত্তর মোঙ্গলীয়ায় ১৯টি, দক্ষিণমোঙ্গণীস্থায় ৫৭ট, কোকোনোয়ে ৩৫টা, ছিয়ামদে৷ ওর্জেস্থাবনে &ট এবং পেকিনে ১৪টা আছেন। ঐ সকল দেহান্তরপ্রধিষ্ট লামার মধ্যে পশ্চিম-তিব্বতের সেগুছেন রিণপোছে, বঙজি লো প, বিল্লুঙ, লো ছেন, ক্যি জর তিঙ্কি, দে ছন্ন অলিগ, কঙুল ও কোণ্ড এবং থামবিভাগে তু, ছলো দোর্জে প্রভৃতি প্রধান । পেকিনের লামামগুল তিব্বতীয় ভাষায় ছঞ্জ-স্কা ( শাক্য ? ) বলিয়া কথিত এবং এখানকার লামাচাৰ্য্য রোল পহীয় অবতাররূপে পূজিত। সম্রাট, কঙ্গ-ছি’র রাজত্বকালে ১৬৯• হইতে ১৭০০ খৃষ্টাব্দের মধ্যে তিনি দৈবশক্তিসম্পন্ন হইয়াছিলেন। সম্রাট তাহার প্রতি বিশ্বাসনিবন্ধন তাহাকে মধ্য মোদলীয়ার ধৰ্ম্মাধ্যক্ষ পদ দান করেন । লাদকের অবতীর্ণ লামাগণ কু-যে নামে পরিচিত। খৃষ্টাৰে যে লামাবতার ছিলেন,তাহার বয়স ২৬ বৎসর। ইনি ১৪শ বর্ষকাল তিব্বতে থাকিয়া বিদ্যাভ্যাস করেন। লামাচাৰ্য্য তালিকায় ইনি সপ্তদশ । যম্দোক হ্ৰদতীরস্থ সন্তারামে একজন বৌদ্ধ রমণী আচাৰ্য্যাণী পদ পাইয়াছেন। তিনি বজ্রবারাহীর অবতার বলিয়া সম্মানিত । মিঃ বোগল তাহার সাক্ষাৎ লাভ করিয়াছিলেন। লামাচাৰ্য্যগণ দেহত্যাগ করিবার সময়, স্ব স্ব পুনর্জন্ম প্রকটন করিয়া যান। তাহার কোন গ্রামে ও কোন পরিবারে জন্মপরিগ্রহ করিবেন, তাহাও নির্দেশ করিয়া থাকেন ; কিন্তু ৰৰ্তমান সময়ে সেই লামাবতারের নির্বাচন ও পরীক্ষা স্বতন্ত্র প্রথার গৃহীত হইয়া থাকে। মৃত লামাচাৰ্য্য কি নামে অবতীর্ণ হইতে পারেন, প্রথমে ১১৭ জন বিশুদ্ধচেতা লামা একত্র হইয়। তাহার নাম নিৰ্দ্ধারণ করিয়া লন। নামনির্দেশকালে ভজনা ও পূজা হয়। যতগুলি পবিত্র নাম তাঙ্কদের মনে উঠে, তাহাই তাহার এক এক থও কাগজে লিথিয়া একটী স্বর্ণপাত্রে রাখেন, পরে তাহারা সকলেইস্তোত্রগান করিতে করিতে ৩১ম হইতে ৭১ম দিন পর্য্যস্ত তাহার মধ্য হইতে থাকিয়া থাকিয় এক একথান কাগজ উঠাইরা লন । ঐ কাগজগুলির মধ্যে লৰ অবতারের নাম পাওয়া যায়। পেকিনরাজ “নছঙে”র ভবিষ্যদ্বাণী বিশ্বাস করিয়া মহালামা নিয়োগ করিয়া থাকেন । লামাচাৰ্য্য নিৰ্ব্বাচনপ্রণালীর গুঢ় রহস্ত ও তাহার প্রকৃত তত্বের মৰ্ম্মোঘাটন জনাবস্তকৰোধে উদ্ভূত হইল না। }yసి)\లి