পাতা:বিশ্বকোষ সপ্তম খণ্ড.djvu/৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জলিন্ধর আধুনিক জালন্ধরতীৰ্থও ৩২ ফ্লোশ ব্যাপী। জালন্ধর জেলার প্রধান সহরকে হিন্দুগণ জালন্ধরপীঠ কহে। জালন্ধরবাসী श्लूिश५ वट्शन, ८ण अणकब्र गांनबएक कदब्रिउ क्ब्र रुहेcन তাহার মস্তক বিপাসা নদীর উত্তরদিকে এবং তাহার মুখ জালামুখী নামক স্থানে বিস্তস্ত হইয়াছিল; তাহার শরীর শতক্ৰ ও বিপাসা নদীর মধ্যবর্তী সমস্ত ভূভাগে বিস্তীর্ণ ছিল। তাহার পিঠ জালন্ধর জেলার ঠিক তলদেশে এবং তাছার পা মূলতানে পড়িয়াছিল। এই প্রদেশের মানচিত্রের প্রতি দৃষ্টিপাত করিলে বুঝা যাইবে যে এই আখ্যানটীর সহিত এই প্রদেশের श्रांङ्कठिंद्र जांभश्नश श्रां८छ् । नलtब्रांन नांभक इन श्रेष्ठ শতক্র ও বিপাসানদী ২৪ মাইল অগ্রসর হইয়া দানবের পৃষ্ঠা কারে পরিণত হইয়াছে, তৎপরে নদী পৃথক হইয় ৯৬ মাইল श्रृं{rख याहेब्बा झझ८मrशद्र ऋट्टैि कब्रिग्नरिझ । ५५न भै २ैौ नौ ফিরোজপুরে পরস্পর মিলিত হইয়াছে, কিন্তু কএক শতাব্দী পূৰ্ব্বে ১৬ মাইলের অধিক দূরে মিলিত হইয়া দানবের কাটদেশের স্বষ্টি এবং মুলতান পৰ্য্যন্ত সমান্তরাল রেখায় দুই নদী প্রবাহিত হইয়া পাদদেশের উৎপত্তি করিয়াছিল। * জালন্ধর নামের উৎপত্তি সম্বন্ধে আর একটা উত্তম গল্প আছে । জলন্ধর নামে একটী রাক্ষস ছিল। যখন ভগবান অন্তবেদী স্থষ্টি করেন, তখন এই রাক্ষস অতিশয় বাধা প্রদান করে। তখন ভগবান বিষ্ণু বামনরূপ ধারণ করিয়া সেই রাক্ষসকে নিহত করেন। রাক্ষস আহত হইলে উপুড় হইয়া মাটিতে পড়িয় গেল এবং তাহার পৃষ্ঠোপরি একটা নগর নিৰ্ম্মিত হইল। এই নগর জালন্ধর নামে খ্যাত। রাক্ষসের দৈর্ঘ্য তাহার পৃষ্ঠদেশের মধ্যস্থল হইতে উভয়দিকে ১২ ক্রোশ বিস্তৃত ছিল। প্রথমে এই স্থানে নগর নিৰ্ম্মাণ হয় ; পরে অন্যান্ত স্থান অধিকৃত হইয়াছে। কতদূর ব্যাপিয়া এই রাক্ষস নিপাতিত ছিল তাহা নির্ণয় করা দুঃসাধ্য। কেচ্ছ কেহ বলেন, নিশ্বল নদীর উপর জিঞ্জাঙ্গল নামক স্থানে নন্দিকেশ্বর মহাদেবের মন্দিরের নীচে জালন্ধর রাক্ষসের মস্তক নিহিত আছে। এই স্থান ও পালামপুরের মধ্যবৰ্ত্তী জঙ্গলময় প্রদেশকে জলন্ধরের স্ত্রী বৃনার নামানুসারে বৃন্দাবন কহে। এই রাক্ষসের মস্তক বৈগুনাথের ৫ মাইল উত্তরপূৰ্ব্বকোণে মুনসোলে মুক্তেশ্বরের মন্দিরের নীচে নিহিত আছে । একহাত নন্দিকেশ্বরে এবং অপর হাত বৈদ্যনাথে স্থাপিত। ইহার পদদ্বয় জালামুখীর দক্ষিণে বিপাশা নদীর পশ্চিমপ্রান্তে কণিপুরে অবস্থিত। শতক্র ও চজভাগা নদীর মধ্যবর্তী প্রদেশ ত্রিগর্ত অথবা ত্ৰৈগৰ্ত্তদেশ নামেও অভিহিত । এই প্রদেশে শতদ্রু, বিপাশা ও চন্দ্রভাগ এই তিনটী নদী প্রবাহিত, এইজন্ত ইহাকে s &8 ) জালন্ধর ত্রিগঞ্জ বলা যায়। মহাভারত, পুরাণ ও কাশ্মীরের ইতিহাস রাজ-তরঙ্গিণী নামক গ্রন্থে ত্ৰিগৰ্ত্ত নাম দেখিতে পাওয়া যায়। হেমচন্দ্রও ত্রিগর্ভ জালদ্বরের প্রতিশষরূপে ব্যবহার कद्रेिभ्रां८छ्न ! 彝 छांणझ८ब्रग्न ब्रांछद१श्व अठि थांछैौन । ब्रांणरुश्गैग्नशं★ बtणन, তাহারা চন্দ্রবংশ হইতে জন্মগ্রহণ করিয়াছেন । ইহাদিগের পূৰ্ব্বপুরুষ স্বশৰ্ম্ম আধুনিক মূলতানে রাজত্ব করিতেন এবং তিনি কৌরব-পাওব-সমরে ছুৰ্য্যোধনের পক্ষে যুদ্ধ করিয়াছিলেন। যুদ্ধান্তে ইহারা সৰ্ব্বশ্বাস্ত হইয়া মুশৰ্ম্মচক্রের অধীনে জালন্ধরে আসিয়া রাজধানী স্থাপন করেন এবং কোটকাঙ্গড়ায় একটা দৃঢ় দুর্গ নিৰ্ম্মাণ করেন । জালন্ধরের রাজগণ চন্দ্রবংশীয় বলিয়া চঞ্জ উপাধি ধারণ করেন। তাহারা বলেন, তাহাদিগের পূর্বপুরুষ সুশৰ্ম্মারাজার সময় হইতেই তাহারা চন্দ্র উপাধি ধারণ করিয়া আসিতেছেন। প্রাচীন তাম্রশাসন, মুদ্রা প্রভৃতি এবং কোন কোন মুসলমান গ্রন্থকারের বর্ণনায় অবগত হওয়া যায় যে জালন্ধরের রাজগণ বহুপূৰ্ব্ব হইতে চঞ্জ উপাধি ধারণ করিয়া আসিতেcछ्न । ४०8 धुं: श्रष्क छांशझ८व्रब्र ब्राछांद्र नांभ छन्नकृठा श्लि । কহলৰ্ণ পণ্ডিত লিখিয়াছেন, ৯ম শতাব্দীর শেষভাগে ত্ৰিগৰ্ত্তরাজ পৃথ্বীচন্দ্র শঙ্করবর্মীর ভয়ে পলায়ন করেন। ১৯৪০ খৃঃ অক্সে ইলুচন্দ্র জালন্ধরের রাজা ছিলেন। ত্ৰিগৰ্ত্ত রাজাদিগের সাম্রাজ্যের সীমা নির্দেশ করা অতিশয় দুরূহ। কোন সময়ে নিকটবৰ্ত্তী দক্ষিণ প্রদেশীয় রাজগণ ত্রিগর্তের কোন কোন স্থান অধিকার করিয়া লইয়াছেন ; আবার ত্ৰিগৰ্ত্তরাজগণ প্রবল হইয়া স্বরাজ্য পুনরায় অধিকার করিয়াছেন । যখন শকগণ ভারতে প্রবেশ করিয়া অনেক স্থান অধিকার করিয়া লয়, তখন ত্রিগর্ভ-রাজগণ তাহাদের সমস্ত অধিকার হইতে বিচ্যুত হন নাই ; তাহার শকদিগের অধীনে করদ রাজা ছিলেন এবং যখনই সুবিধা পাইয়াছেন, তখনই তাহাদিগের প্রাচীন দুর্গ কোটকাঙ্গড় অধিকার করিতে চেষ্টা করিয়াছেন। এক সময় মহম্মদ তোগলক এই দুর্গ অধিকার করিয়া লইয়াছিলেন, কিন্তু তাহ আবার রাজা রূপচাদের হস্তে পতিত হয় ; পুনরায় ফেরোজশ। তাহ অধিকার করেন । পরে তৈমুরের আক্রমণের সময় ত্ৰিগৰ্ত্তরাজ এই দুর্গ পুনরায় হস্তগত করেন এবং সম্রাট আকবরের সময় পৰ্য্যন্ত এই দুর্গ তাহাদিগেরই অধীন ছিল। श्रकृयाद्रग्न नभम्न ब्रांछ ६न्द्रैष्ठ् ग्निर्झौद्र पञईौनङां श्रृंौकांद्र काञ्चन । ब्रांज बरगांकाष्ठा जाशशैtब्रव्र गमब्र विप्याशै। इन ; क्रूि अब्राबिउ श्हेब्र अशैनङ चौकाङ्ग करङ्गन । क्रुि कोणक्रम