পাতা:মুকুট - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

মুকুট

চলুক মাঝের থেকে তোমার ঐ জিভটিকে চালিও না, আমার এই পরামর্শ। যদি টিকে থাকতে চাও তো চুপ করে থাকো।

 দ্বিতীয়। বনমালী ঠিক কথাই বলেছে। ঐ ছোটো কুমারের কথা উঠলেই তুমি যা মুখে আসে তাই ব’লে ফেল। রাজার ছেলে কে ভালো কে মন্দ সে-বিচারের ভার আমাদের উপর নেই। তবে কিনা, আমাদের যুবরাজ বেঁচে থাকুন আর আমাদের মধ্যম কুমার ভাই লক্ষ্মণের মতো সর্বদা তাঁর সঙ্গে সঙ্গে থেকে তাঁকে রক্ষে করুন, ভগবানের কাছে এই প্রার্থনা করো। ছোটো কুমারের কথা মুখে না আনাই ভালো

 প্রথম। ইচ্ছে ক’রে তো আনি নে। আমাদের মধ্যম কুমার সরল মানুষ—মনে তাঁর ভয়ডরও নেই, পাক্‌চক্রও নেই’ সর্বদাই ভয় হয়, ঐ যাঁর নামটা করছি নে তিনি কখন তাঁকে কী ফেসাদে ফেলেন।

 দ্বিতীয়। চল্‌ চল্‌, ঐ আসছেন।

 প্রথম। ঐ যে সঙ্গে ওঁর মামাতো ভাই ধুরন্ধরটিও আছেন, শনির সঙ্গে মঙ্গল এসে জুটেছেন।

[প্রস্থান