পাতা:রঙ্গমল্লী.djvu/৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দৃষ্ট্রিহার ግቁ প্রথম অন্ধ আমি ক্ষিদে পেলেই বুঝতে পারি বেলা গেছে ; ক্ষিদেও দেখছি পেয়েছে । छूडीौग्न श्रक আচ্ছা, ঘাড় তুলে একবার আকাশের দিকে তাকাও দেখি, হয় তো বুঝতে পাৰ্ব্বে । ( তিনজন জন্মান্ধ ব্যতীত সকলেই আকাশের দিকে দৃষ্টিহীন চক্ষে চাহিল। জন্মান্ধের পূর্বের মত নত মস্তকে মাটির দিকেই চাহিয়া রহিল । ) शर्छ अक्क আমরা খোলা জায়গায় আছি কি ন—তাও বোঝা যাচ্ছে না । প্রথম অন্ধ কথা কইলেই যে রকম গমৃগম্ কচ্ছে তাতে মনে হয় আমরা একটা গুহার ভিতর বসে আছি। অন্ধ স্থবির আমার মনে হয় সন্ধ্যা হ’য়েছে বলে ওরকম গম্‌ গম্‌ কচ্ছে । অন্ধ তরুণী আমার বোধ হ’চ্ছে আমার দুটি হাত পরিপূর্ণ করে জ্যোৎস্না ঝরে পড়ছে। অন্ধ স্থবিরা আমার বোধ হ’চ্ছে নক্ষত্র উঠেছে, স্পষ্ট শুনছি। অন্ধ তরুণী আমিও ।