পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অচলিত) প্রথম খণ্ড.pdf/৫৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


● >bア রবীন্দ্র-রচনাবলী তখন নয়ন মুদি কত স্বপ্ন দেথি ! কত স্বপ্ন হায় । কত দীপালোক – কত ফুল— কত পাখী ! কত স্থধামাখা কথা, কত হাসিমাখা আঁখি ! কত পুরাতন স্বর কে জানে কাহারে ভাকে ! কত কচি হাত এসে খেলে এ পলিত কেশে, কত কচি রাঙ্গা মুখ কপোলে কপোল রাখে ! কত স্বপ্ন হায় ! হৃদয় চমকি উঠি চারি দিকে চায়, দেখে গো কঙ্কালরাশি হেথায় হেtথায় ! সে দীপ নিভিয়া গেছে, সে ফুল শুখায়ে গেছে, সে পাখী মরিয়া গেছে— সুধামাখা কথাগুলি চিরতরে নীরবিত, হাসিমাথা তাখিগুলি চিরতরে নিমীলিত -— আমি যাব গো ! দেখি যদি পারি তবে প্রভাতের গান অামি গাব গো ! এ ভগ্ন বীণার তন্ত্রী ছি ড়েছে সকল আর— ছটি বুঝি বাকি আছে তার ! এখনো প্রভাতে যদি হরবিতণ্ডপ্রাপ এ বীণা বাজাতে যাই চমকি শুনিতে পাই সহসা গাহিয়া উঠে যৌবনেরি গান সেই ছুটি তার । টুটে গেছে, ছিড়ে গেছে বাকি যত অার । যুগ-যুগাস্তের এই শুষ্ক জীর্ণ গাছে দুটি শাখা আছে— এখনো যদি গো শুনে বসস্তপাখীর গীত, এখনো পরশে যদি বসস্তমলয়বায়, छू-काग्निर्ध्नि कि*जन्त्र