পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (একবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১৫৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তপতী ১২৯ কাশ্মীর জয় করেছে। কবরী থেকে ফেলে দিয়েছি মালা, আমার রক্তাংশুক লুটচ্ছে শিরীষবনের পথে । হাসছ কেন রানী । স্থমিত্রা । সে জায়গাটাকে তুই বনের পথ বলিস ? এখানে আসবার সময় তোর রক্তাংশুক যে একজনের মাথায় দেখলুম। বিপাশা। ওই দেখো, মহারানী, লজ্জা নেই, এখানকার যুবকদের অভ্যাস খারাপ, ওটা চুরি ! স্বমিত্রা। আমার সন্দেহ হচ্ছে চুরিবিদ্যা শেখাবার জন্তেই চোরের রাস্তায় তোর রক্তাংশুক পড়ে থাকে। শুনেছি তার বিষ্ঠা সম্পূর্ণ হয়েছে, এবার তার চুরির শেষ পরীক্ষা হবে, তোর উপর দিয়ে । ৰিপাশ | রাজার আজ্ঞা নাকি । স্থমিত্র । ধার আজ্ঞা তার বেদী সাজাবি চল । ওই পদ্মের কুঁড়িটিই তোর প্রথম ' यर्धा ८झांक । বিপাশা ৷ যেয়ে না তুমি, তবে একটা কথা তোমাকে জিজ্ঞাসা করি, সত্য করে বলে। মকরকেতনের পূজায় আজ রাত্রে যে-উৎসব হবে তাতে তোমার উৎসাহ আছে ? স্বমিত্রা । মহারাজের আদেশ । বিপাশা। সে তো জানি কিন্তু তোমার নিজের মন কী বলে।–চুপ করে থাকবে ? স্বমিত্রা। ই, চুপ করেই থাকব। বিপাশা। আচ্ছা বেশ । কিন্তু একটা প্রশ্ন এতদিন তোমাকে জিজ্ঞাসা করতে সাহস করি নি— আজ জিজ্ঞাসা করবই—চুপ করে থাকলে চলবে না । স্বমিত্রা । কী প্রশ্ন তোর । বিপাশা। সত্যই কি তুমি মহারাজকে ভালোবাস । বলতেই হবে আমাকে । স্বমিত্রা। ই ভালোবালি। উত্তর শুনে চুপ করে রইলি যে ! বিপাশা। তবে সত্য কথা বলি তোমাকে । আর কিছুদিন আগে এ প্রশ্নও আমার মনে আসত না, উত্তর শুনলেও মেনে নিতুম। স্থমিত্রা । আজ নিজের মনের সঙ্গে মনে মনে মিলিয়ে দেখছিল বুঝি। বিপাশা। তা তোমাকে লুকোব না, সবই তুমি জানো— মিলিয়ে দেখছি বৈকি, কিন্তু ঠিক মেলাতে পারছি নে । স্বমিত্রা। কী করে মিলবে। প্রজারক্ষার করুশীয় কাশ্মীরের অসন্মান স্বীকার