পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (একবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রবীন্দ্র-রচনাবলী جولا নলীলাল বাবু যাবে লক্ষণ ; শু্যালা শুনে এল, তার ডাক-নাম টঙ্কা । বলে, “হেন উপদেশ তোমারে দিয়েছে সে কে, আজও অাছে রাক্ষস, হঠাৎ চেহারা দেখে রামের সেবক ব’লে করে যদি শঙ্কা । অীকৃতি প্রকৃতি তব হতে পারে জমকালো, দিদি যা বলুন, মুখ নয় কহু কম কালো— খণমকণ তাদের ভয় লাগিবে অচিমকল । হয়তো বাজীবে রণভঙ্কা ।” (سی انسان ভোলানাথ লিখেছিল, তিন-চারে নব্বই— গণিতের মার্কার কাটণ গেল সর্বই । তিন-চারে বারো হয়, মাস্টার তীরে কয় ; “লিখেছিন্থ ঢের বেশি’ এই তার গর্বই । 9حينا একটা খোড়া ঘোড়ার পরে চড়েছিল চাটুর্জে,