পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্দশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৪৮৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*ांशुिनिएकडम 8° অরণ্যবাসের সঙ্গে মাহুষের চিত্তের সামঞ্জস্তসাধন ঘটে নি। হয় তাকে জয় করবার, নয় তাকে ত্যাগ করবার চেষ্টা সর্বদাই রয়েছে ; হয় বিরোধ, নয় বিরাগ, নয় ঔদাসীন্ত । মাহুষের প্রকৃতি বিশ্বপ্রকৃতিকে ঠেলেঠলে স্বতন্ত্র হয়ে উঠে আপনার গৌরব প্রকাশ করেছে। - - মিলটনের প্যারাডাইস লস্ট কাব্যে আদি মানবদম্পতির স্বর্গারণ্যে বাস বিষয়টিই এমন যে অতি সহজেই সেই কাব্যে মানুষের সঙ্গে প্রকৃতির মিলনটি সরল প্রেমের সম্বন্ধে বিরাট ও মধুর হয়ে প্রকাশ পাবার কথা। কবি প্রকৃতিসৌন্দর্ষের বর্ণনা করেছেন, জীবজন্তুরা সেখানে হিংসা পরিত্যাগ করে একত্রে বাস করছে তাও বলেছেন, কিন্তু মানুষের সঙ্গে তাদের কোনো সাত্ত্বিক সম্বন্ধ নেই । তারা মানুষের ভোগের জন্যেই বিশেষ করে স্বই, মানুষ তাদের প্রভু। এমন আভাসটি কোথাও পাই নে যে এই আদি দম্পতি প্রেমের আনন্দ-প্রাচুর্বে তরুলত পশুপক্ষীর সেবা করছেন, ভাবনাকে কল্পনাকে নদীগিরিঅরণ্যের সঙ্গে নানালী লায় সম্মিলিত করে তুলছেন। এই স্বৰ্গারণ্যের ষে নিভৃত নিকুঞ্জটিতে মানলের প্রথম পিতামাতা বিশ্রাম করতেন সেখানে “Beast, bird, insect or worm durst enter none ; such was their awe of man."—অর্থাৎ পশু পক্ষী কীট পতঙ্গ কেউ প্রবেশ করতে সাহস করত না, মানুষের প্রতি এমনি তাদের একটি সভয় সন্ত্রম ছিল। এই ষে নিখিলের সঙ্গে মামুষের বিচ্ছেদ, এর মূলে একটি গভীরতর বিচ্ছেদের কথা আছে। এর মধ্যে—ঈশাবাস্তমিদং সৰ্বং যংকিঞ্চ জগত্যাং জগং—জগতে যা কিছু আছে সমস্তকেই ঈশ্বরের দ্বারা সমাবৃত করে জানবে, এই বাণীটির অভাব আছে। এই পাশ্চাত্য কাব্য ঈশ্বরের স্থাই ঈশ্বরের যশোকীতৰ্ন করবার জন্তেই ; ঈশ্বর স্বয়ং দূরে থেকে র্তার এই বিশ্বরচনা থেকে বন্দনা গ্রহণ করছেন। মানুষের সঙ্গেও আংশিক পরিমাণে প্রকৃতির সেই সম্বন্ধ প্রকাশ পেয়েছে অর্থাৎ প্রকৃতি মানুষের শ্রেষ্ঠত প্রচারের জন্তে । ভারতবর্ষও যে মানুষের শ্রেষ্ঠত অস্বীকার করে তা নয়। কিন্তু প্রভুত্ব করাকেই ভোগ করাকেই সে শ্রেষ্ঠতার প্রধান লক্ষণ বলে মানে না । মানুষের শ্রেষ্ঠতার সর্বপ্রধান পরিচয়ই হচ্ছে এই ষে, মানুষ সকলের সঙ্গে মিলিত হতে পারে! সে-মিলন মূঢ়তার মিলন নয় লে-মিলন চিত্তের মিলন, স্বতরাং আনন্মের মিলন। এই আনন্দের কথাই আমাদের কাব্যে কীর্তিত । § o উত্তরচরিতে রাম ও সীতার ৰে প্রেম, সেই প্ৰেম আনন্মের প্রাচুর্যবেগে চারি দিকের জলস্থল আকাশের মধ্যে প্রবেশ করেছে। তাই রাম দ্বিতীয়বার গোদাবরীর 8|\లి) .