পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (চতুর্বিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/১১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বেশের আদর করতে গিয়ে ওরা রূপের জমাদর ভোলে— আমার পাশে ও মোর মনোচোরা, একলা এলো চলে । হঠাৎ কখন এসেছ ঘর ফেলে তুমি পথিক-বধূ, মাটির ভাড়ে কোথার থেকে পেলে পদ্মবনের মধু। ভালোবাসি ভাবের সহজ খেলা এসেছ তাই শুনে— মাটির পাত্রে নাইকো আমার হেলা হাতের পরশগুণে । পায়ে নূপুর নাই রহিল বাধা, নাচেতে কাজ নাই, যে-চলনটি রক্তে তোমার সাধা মন ভোলাবে তাই । লজ্জা পেতে লাগে তোমার লাজ ভূষণ নেইকো ব’লে, নষ্ট হবে নেই তো এমন সাজ ধুলোর পরে চলে । গায়ের কুকুর ফেরে তোমার পাশে, রাখালরা হয় জড়ো, বেদের মেয়ের মতন অনায়াসে টাই ঘোড়ায় চড়ে । ভিজে শাড়ি হাটুর পরে তুলে পার হয়ে যাও নদী, বামুনপাড়ার রাজা যে বাই ভুলে তোমায় দেখি যদি । To a S