পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (দ্বাবিংশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


র্মেভূতি জন্মদিন আজ মম জন্মদিন । সদ্যই প্রাণের প্রাস্তপথে ডুব দিয়ে উঠেছে সে বিলুপ্তির অন্ধকার হতে মরণের ছাড়পত্র নিয়ে । মনে হতেছে কী জানি পুরাতন বৎসরের গ্রন্থিবাধা জীর্ণ মালাখানি সেথা গেছে ছিন্ন হয়ে ; নবস্তুত্রে পড়ে আজি গাথা নব জন্মদিন । জন্মোৎসবে এই-যে আসন পাতা হেথা আমি যাত্রী শুধু, অপেক্ষা করিব, লব টিকা মৃত্যুর দক্ষিণ হস্ত হতে, নূতন অরুণলিখা যবে দিবে যাত্রার ইঙ্গিত । অাজ আসিয়াছে কাছে জন্মদিন মৃত্যুদিন, একাসনে দোহে বসিয়াছে, দুই আলো মুখোমুখি মিলিছে জীবনপ্রাস্তে মম রজনীর চন্দ্র আর প্রত্যুষের শুকতারাসম— এক মস্ত্রে দোহে অভ্যর্থনা । প্রাচীন অতীত, তুমি নামাও তোমার অর্ঘ্য ; অরূপ প্রাণের জন্মভূমি, উদয়শিখরে তার দেখো আদিজ্যোতি । করে। মোরে আশীৰ্বাদ, মিলাইয়া যাক তৃষাতপ্ত দিগন্তরে মায়াবিনী মরীচিকা । ভরেছিকু আসক্তির ভালি কঙালের মতো ; অশুচি সঞ্চয়পাত্র করো খালি, ভিক্ষণমুষ্টি ধুলায় ফিরায়ে লও, যাত্রাতরী বেয়ে পিছু ফিরে আর্ত চক্ষে যেন নাহি দেখি চেয়ে চেয়ে জীবনভোজের শেষ উচ্ছিষ্টের পানে ।