পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২০৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>の|> ○ পরিশেষ চুপ করে রয় মিনিট কয়েক, অমিরে কয় ঠেলে, গাড়ির ভাঙা চাকা সারিয়ে দেবে বলেছিলে, দাও এটে ইস্কুপ ।” আমি বললে কানে-কানে, "চুপ চুপ চুপ।” আবার খানিক শাস্ত হয়ে শুনল বসে নন্দ কবিবরের অমর ভাষার ছন্দ । একটু পরে উস্খুসিয়ে গাড়ির থেকে দশবারোটা কড়ি মেজের পরে করলে ছড়াছড়ি । ঝম্বামিয়ে কড়িগুলো গুনগুনিয়ে আউড়ে চলে ছড়া,— এর পরে আর হয় না কাব্য পড়া । তার ছড়া আর আমার ছড়ায় আর কতখন চলবে রেষারেষি, হার মানতে হবেই শেষাশেষি । আমি বললে, “দুই ছেলে ।” নন্দ বললে, “তোমার সঙ্গে আড়ি,— নিয়ে যাব গাড়ি, দিনদাদাকে ডাকব ছাতে ইষ্টিশনের খেলায়, গড়গড়িয়ে যাবে গাড়ি বন্দিবাটির মেলায় ।” এই বলে সে ছলছলানি চোখে গাড়ি নিয়ে দৌড়ে গেল কোন দিকে কোন ঝোঁকে । আমি বললেম, যাও অমিয়, আজকে পড়া থাক্‌, নন্দগোপাল এনেছে তার নতুনকালের ডাক । আমার ছন্দে কান দিল না ও যে কী মানে তার আমিই বুঝি আর যারা নাই বোঝে। যে-কবির ও শুনবে পড়া সেও তো আজ খেলার গাড়ি ঠেলে, ইষ্টিশনের খেলাই সেও খেলে । আমার মেলা ভাঙবে যখন দেব খেয়ায় পাড়ি, তার মেলাতে পৌছবে তার গাড়ি, brసె