পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বদন্ত রাজা। কবি ! কবি । কী মহারাজ । রাজা । আমি মন্ত্রণাসভা থেকে পালিয়ে এসেছি । কবি । সৎকার্য করেছেন। কিন্তু মহারাজের এমন সুমতি হল কেন । রাজা। বৎসর শেষ হয়ে এল, রাজকোষ শূন্যপ্রায়। মন্ত্রণাসভায় বসলেই সচিবর আসেন তাদের নিজ বিভাগের জন্যে টাকা দাবি করতে। কাজেই পলায়ন ছাড়া গতি নেই। কবি । এতে উপকার হবে । রাজা । কার উপকার হবে । কবি । রাজ্যের । রাজা । সে-কি কথা । কবি । রাজা মাঝে-মাঝে সরে দাড়ালে প্রজারা রাজত্ব করবার অবকাশ পায় । রাজা । তার অর্থ কী হল । কবি। রাজার অর্থ যখন শূন্যে এসে ঠেকে প্রজা তখন নিজের অর্থ খুজে বের করে, তাতেই তার রক্ষা । রাজা। কবি, তোমার কথাগুলো বাকা ঠেকছে। মন্ত্রণাসভা ছেড়ে এসেছি, আবার তোমার সঙ্গও ছাড়তে হবে নাকি । - কবি । না, তার দরকার হবে না। আপনি যখন পলাতক তখন তো আমাদেরই দলে এসে পড়েছেন । রাজা । তোমার দলে ? কবি। ই মহারাজ, আমি জন্মপলাতক ।