পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (পঞ্চদশ খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩৫৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বসন্তু ৩৩৯ আপন স্বধা দিয়ে ভরে দেব তারে । চোখের জলে সে-যে নবীন রবে, ধ্যানের মণিমালায় গাথা হবে, পরব বুকের হারে। নয়ন হতে তুমি আসবে প্রাণে, মিলবে তোমার বাণী আমার গানে । বিরহব্যথায় বিধুর দিনে দুখের আলোয় তোমায় নেব চিনে, এ মোর সাধনা রে । সকলে । ওরে পথিক, ওরে প্রেমিক, বিচ্ছেদে তোর খণ্ডমিলন পুর্ণ হবে। অায় রে সবে প্ৰলয়গানের মহোৎসবে । তাওবে ওই তপ্ত হাওয়ায় ঘূর্ণি লাগায়, মত্ত ঈশান বাজায় বিষাণ শঙ্কা জাগায়, ঝংকারিয়া উঠল আকাশ ঝঞ্চারবে । আয় রে সবে প্রলয়গানের মহোৎসবে । রাজা। আমার মন্ত্রণাসভার দশা করলে কী । সব মন্ত্রী-যে এখানে এসে জুটেছে। ওই দেখো, আমার অর্থসচিবস্থদ্ধ-যে নাচতে শুরু করে দিলে। বড়ো লঘু হয়ে পড়ছেন না ? কবি । ওঁর-ষে থলি শূন্ত হয়ে গেছে, তাই নাচে টেনেছে। বোঝা ভারি থাকলে গৌরবে নড়তে পারতেন না। আজ আমাদের অগৌরবের উৎসব। রাজা। রাজগৌরব ?