পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


:వెసా রবীন্দ্র-রচনাবলী এত দিনে সেথা বনবনাস্ত নন্দিয়া নব বসন্তে এসেছে নবীন ভূপতি । তরুণ অাশার সোনার প্রতিম বন্দিয়া নব আনন্দে ফিরিছে যুবক যুবতী । বীণার তন্ত্রী আকুল ছন্দে ক্রন্দিয়া ডাকিছে সবারে আছে যারা দূর প্রবাসে। বহু সংশয়ে বহু বিলম্ব করেছি, এখন বন্ধ্যা সন্ধ্য আসিল আকাশে । আজিকে সবাই সাজিয়াছে ফুলচন্দনে, মুক্ত আকাশে যাপিবে জ্যোৎস্নাযামিনী । দলে দলে চলে বাধার্বাধি বাহুবন্ধনে, ধ্বনিছে শূন্যে জয়সংগীতরাগিণী । নূতন পতাকা নূতন প্রাসাদপ্রাঙ্গণে দক্ষিণবায়ে উড়িছে বিজয়বিলাসে । বহু সংশয়ে বহু বিলম্ব করেছি, এখন বন্ধ্যা সন্ধ্য আসিল আকাশে । সারা নিশি ধরে বৃথা করিলাম মন্ত্রণা, শরৎ-প্রভাত কাটিল শূন্যে চাহিয়া । বিদায়ের কালে দিতে গেল্প কারে সাত্বনা, যাত্রীরা হোথা গেল খেয়াতরী বাহিয়া । আপনারে শুধু বৃথা করিলাম বঞ্চন, জীবন-অাহুতি দিলাম কী আশাহতাশে । বহু সংশয়ে বহু বিলম্ব করেছি, এখন বন্ধ্য সন্ধ্যা আসিল আকাশে । প্রভাতে আমায় ডেকেছিল সবে ইঙ্গিতে, বহুজনমাঝে লয়েছিল মোরে বাছিয়া— যবে রাজপথ ধ্বনিয়া উঠিল সংগীতে তখনো বারেক উঠেছিল প্রাণ নাচিয়া ।