পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/২৭৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


هوا ج রবীন্দ্র রচনাবলী চাদের পানে চক্ষু তুলে রয় না পড়ে নদীর কূলে, গভীর দুঃখ ইত্যাদি সব মনের সুখেই বয় গে । সুথে আছি লিখতে গেলে লোকে বলে, ‘প্রাণটা ক্ষুদ্র । আশাট এর নয়কে বিরাট, পিপাস এর নয়কে রুদ্র ? পাঠকদলে তুচ্ছ করে, অনেক কথা বলে কঠোর— বলে, ‘একটু হেসে-খেলেই ভরে যায় এর মনের জঠর ” কবিরে তাই ছন্দে বন্ধে বানাতে হয় দুথের দলিল । মিথ্যা যদি হয় সে তবু ফেলো পাঠক, চোখের সলিল । তাহার পরে আশিস কোরে রুদ্ধকণ্ঠে ক্ষুব্ধবুকে, কবি যেন অণজন্মকাল দুখের কাব্য লেগেন সুখে । কাব্য যেমন কবি যেন তেমন নাহি হয় গো । বুদ্ধি যেন একটু থাকে, স্নানাহারের নিয়ম রাখে, সহজ লোকের মতোই যেন সরল গদ্য কয় গে । ৬ আষাঢ়