পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৩৮৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


थjऋकौडूकं । \రీSసి বলছিলেন, বিবাহের পূর্বে কন্যার সঙ্গে জানাশুনার চেষ্টা না করাই কর্তব্য। যুক্তিটা কী দিচ্ছিলেন, ভালো বোঝা গেল না। * * আশু । তিনি বলছিলেন, সকল জিনিসের আরম্ভের মধ্যে একটা গোপনতা আছে। বীজ মাটির নীচে অন্ধকারের মধ্যে থাকে, তার পরে অঙ্কুরিত হলে তখন স্বৰ্ষ-চন্দ্র-জল-বাতাসের সঙ্গে মুখোমুখি লড়াই করবার সময় আসে। বিবাহের পূর্বে কন্যার হৃদয়কে বিলাতি অনুকরণে বাইরে টানাটানি না করে তাকে আচ্ছন্ন আবৃত রাখাই কর্তব্য। তখন তার উপরে তাড়াতাড়ি দৃষ্টিক্ষেপ করতে যেয়ে না। সে যখন স্বভাবতই নিজে অঙ্কুরিত হয়ে তার অর্ধমুকুলিত সলজ্জ দৃষ্টিটুকু গোপনে তোমার দিকে অগ্রসর করতে থাকবে, তখনই তোমার অবসর। অন্নদা। আমার অদৃষ্টে সে পরীক্ষা তো হয়ে গেছে। বিলাতি প্রথা-মতে বিবাহের পূর্বে কন্যার হৃদয় নিয়ে টানা-হেঁচড়া করি নি ; হৃদয়টা এত অন্ধকারের মধ্যে ছিল যে আমি তার কোনো খোজ পাই নি, তার পরে অঙ্কুরিত হল কি না হল তারও তো কোনো ঠিকানা পেলেম না। এবারে উন্টোরকম পরীক্ষা করতে চলেছি, এবার আগে হৃদয়, তার পরে অন্য কথা । আশু। পরীক্ষার দিন কবে ? অন্নদা । কাল । r আশু । স্থান ? অন্নদা। উনপঞ্চাশ নম্বর রাম বৈরাগীর গলি । আশু । নম্বরটা তো ভালো শোনাচ্ছে না । অন্নদা । কেন ? উনপঞ্চাশ বায়ুর কথা ভাবছ ? সে আমাকে টলাতে পারবে না— তুমি হলে বিপদ ঘটত। আশু। পাত্র ? অন্নদা । কন্যার বিধবা মা তাকে পশ্চিম থেকে সঙ্গে করে এনেছে। অামি ঘটককে ব’লে রেখেছি যে ভালো করে মেয়েটির সঙ্গে পরিচয় করে নিয়ে তবে বিবাহের কথা হবে। 蠍 蜘 আtশু । কিন্তু অন্নদা, শেষকালে বহুবিবাহে প্রবৃত্ত হলে ? অন্নদা। তোমাদের মতো আমি নাম দেখে ভড়কাই নে। যে বহুবিবাহের মধ্যে আর সমস্ত আছে, কেবল বহুটুকুই নেই, তাকে দেখে চমকাও কেন ভাই ? আণ্ড। তবু একটা প্রিন্সিপল আছে তো ? বহুবিবাহকে বহুবিবাহ বলতেই হবে। অন্নদা । আমার নামমাত্র স্ত্রী যেখানে আছে গ্রিন্সিপলও সেইখানে আছে। সে স্ত্রীও