পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (সপ্তম খণ্ড) - বিশ্বভারতী.pdf/৫৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গ্রন্থপরিচয় বাহু বাড়াইয়া গুরু শুধায় কুশল, আশীষিলা মাথায় পরশি করতল । কনকে হীরকে গাথা বলয় দুখানি গুরুপদে দিলা রঘু জুড়ি দুই পাণি। ভূমিতল হতে বালা লইলেন তুলে, দেখিতে লাগিলা প্রভু ঘুরায়ে আঙুলে । হীরকের স্থচিমুখ শতবার ঘুরি হানিতে লাগিল শত আলোকের ছুরি । ঈষৎ হাসিয়া গুরু পাশে দিলা রাখি, আবার সে পুথি-পরে নিবেশিলা আঁখি । সহসা একটি বালা শিলাতল হতে গড়ায়ে পড়িয়া গেল যমুনার স্রোতে । "আহ আহা চীৎকার করি রঘুনাথ ঝাপায়ে পড়িল জলে বাড়ায়ে দু হাত । আগ্রহে যেন তার প্রাণমন কায় একখানি বাহু হয়ে ধরিবারে যায় । বারেকের তরে গুরু না তুলিলা মুখ, নিভূত হৃদয়ে তার জাগে পাঠমুখ । কালো জল চুপে চুপে বহিল গোপন ছল-ভরা স্বগভীর চুরির মতন। দিবালোক চলে গেল দিবসের পিছু । যমুনা উতলা করি না মিলিল কিছু। সিক্ত বসন লয়ে শ্রান্ত শরীরে রঘুনাথ গুরু কাছে আসিলেন ফিরে । ‘এখনো উঠাতে পারি করযোড়ে যাচে, ‘যদি দেখাইয়া দাও কোনখানে আছে।’ aఫీని