পাতা:রাজমোহনের স্ত্রী.djvu/১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


У о রাজমোহনের স্ত্রী রাজমোহনের স্ত্রী বলিল, না না, তুমি থাকলে হিতে বিপরীত হবে। তুমি বাড়ি যাও । কনক অন্য পথ ধরিল । তরুণী যতক্ষণ গৃহে প্রবেশ না করিল, রাজমোহন ততক্ষণ কিছুই বলিল না। তরুণী জলের কলসী রান্নাঘরের দাওয়ায় নামাইল । রাজমোহন তাহার সঙ্গে সঙ্গে রান্নাঘর অবধি আসিয়াছিল। বলিল, দাড়াও একটু। সে কলসীর সমস্ত জল উঠানে ঢালিয়া দিল । রাজমোহনের প্রাচীন পিসী হঁ-ই করিয়া আসিয়া তাহাকে ভৎসনা করিতে লাগিলেন । “চুপ কর মাগী হারামজাদী—বলিয়া রাজমোহন বারিশূন্ত কলসীটা বেগে দূরে নিক্ষেপ করিল ; এবং স্ত্রীর দিকে ফিরিয়া অপেক্ষাকৃত মৃদু অথচ অন্তজর্ণলাকর স্বরে কহিল, তবে রাজরাণী, কোথায় যাওয়া হইয়াছিল ? “রমণী অতি মুদুস্বরে দাঢ্য সহকারে কহিল, জল আনিতে গিয়াছিলাম । “যথায় স্বামী তাহাকে দাড়াইতে বলিয়াছিল তিনি তথায় চিত্রাপিত পুত্তলিকার ন্যায় অস্পন্দিতকায় দাড়াইয়াছিলেন। “রাজমোহন ব্যঙ্গ করিয়া কহিল, জল আনিতে গিয়াছিলে ! কারে বলে গিছলে ঠাকুরাণি ? “কাহারেও বলে যাই নাই । “রাজমোহন আর ক্রোধ-প্রবাহ সম্বরণ করিতে পারিল না, চিৎকার স্বরে কহিল, কারেও বলে যাও নাই—আমি দশ হাজার বার বারণ করেছি না ? “অবলা পূৰ্ব্বমত মৃদুভাবে কহিল, করেছ। “তবে গেলি কেন হারামজাদি ? “রমণী অতি গৰ্বিবত বচনে কহিল, আমি তোমার স্ত্রী। র্তাহার মুখ আরক্ত হইয়া উঠিল, কণ্ঠস্বর বদ্ধ হইয়া আসিতে লাগিল । “গেলে কোন দোষ নাই বলিয়া গিয়াছিলাম ।