পাতা:লালন-গীতিকা.djvu/৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
লালন-গীতিকা

আছে যার মনের মানুষ, মনে সে কি জপে মালা।
অতি নির্জনে সে বসে বসে দেখছে খেলা॥
কাছে রয়ে ডাকে তারে উচ্চস্বরে কোন পাগলা।
ওরে যে যা বোঝে, তাই সে বুঝে থাক রে ভোলা॥
যথা যার ব্যথা নেহাৎ সেইখানে হাত ডলা-মলা।
ওমনি[১] জেনো মনের মানুষ মনে তোলা॥
যে-জনা দেখে সে রূপ, করিয়ে চুপ, রয় নিরালা।
ও সে লালন ভেড়ের লোক জানানো হরি বলা,
মুখে হরি হরি বোলা॥

চল দেখি মন, কোন দেশে যাবি।
অবিশ্বাস হলে কোথায় কি পাবি॥
এ দেশ ভূত পেতো বলে
সারে পেড়োও কয়তা দিল
পেড়োর ভূত, কোন দেশে গেলে
মুক্তি পায় কিসে ভাবি॥
মন বোঝ না তীর্থ করা,
মিছামিছি হেঁটে মরা,
পেড়োর কাজ হয় পিড়েই সারা
নিষ্ঠা হয় মন যদ্যপি॥
বার ভাটি বাংলা জুড়ে
একই মাটি আছে পড়ে
সিরাজ সাঁই কয়, লালন ভেড়ে
ঠিক দাও আপন নসিবী

  1. তেমনি