পাতা:লিপিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১২১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নতুন পুতুল > এই গুণী কেবল পুতুল তৈরি করত ; সে পুতুল রাজবাড়ির মেয়েদের খেলার জন্তে । বছরে বছরে রাজবাড়ির আঙিনায় পুতুলের মেল। বসে। সেই মেলায় সকল কারিগরই এই গুণীকে প্রধান মান দিয়ে এসেচে । যখন তার বয়স হল প্রায় চার কুড়ি, এমন সময় মেলায় এক নতুন কারিগর এল । তার নাম কিষণলাল, বয়স তার নবীন, নতুন তার কায়দা । যে-পুতুল সে গড়ে তার কিছু গড়ে কিছু গড়ে না, কিছু রং দেয় কিছু বাকি রাখে। মনে হয় পুতুলগুলো ষেন ফুরোয় নি, যেন কোনোকালে ফুরিয়ে যাবে না । নবীনের দল বললে, “লোকটী সাহস দেখিয়েচে ।” প্রবীণের দল বললে, “একে বলে সাহস ? এ ত সপদ্ধ।”