পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (অষ্টম সম্ভার).djvu/৪১২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শরৎ-সাহিত্য-সংগ্ৰহ बाषि७ श्रेश शंशंकांब्र कब्रिटउहि ।। 4-जकण छूमि बाषांधारेण चांमब्रा चांब्र তিটিতে পারি না। বাস্তবিক ইহার অধিক আমরা কি কিছু বলি, না করি ? चांमब्रा निःण९लाग्र हिब्र कब्रिब्रांहि cष, ८षशन कब्रिब्राहे एलेक विणन कब्रिशांब्र खांद्र चांबां८क्ब्र ७ष९ पञउJांछांब्र निवांब्रभं कब्रियांब्र खांब्र डांशं८षब्र किरू वखड: इ७ब्रां डेफ्रेिष्ठ फ़ैिक विशद्रौष्ठ । अज्रांकांव्र षांभाहेबांद्र छांद्र अश्न कद्रा खेफ्रेिष्ठ निष्णद्वक्द्र ७द९ ছিন্থ-স্বসলমান মিলন বলিয়া ৰদি কিছু থাকে ত সে সম্পন্ন করিবার ভার দেওয়া উচিত মুসলমানদের পরে। किरू cश्रवद्र वृखि श्रेष्व कि कब्रेिब्रा ? किरू विखांना कब्रि, बृङि कि शब গোজামিলে । মুক্তি অর্জনের ব্লতে হিন্ধু যখন আপনাকে প্রস্তুত করিতে পারিবে তখন লক্ষ্য করিবারও প্রয়োজন হইবে না, গোটা-কয়েক মুসলমান ইহাতে যোগ দিল কি না। ভারতের মুক্তিতে ভারতীয় মুসলমানেরও মুক্তি মিলিতে পারে, এ সত্য তাহারা কোনদিনই অকপটে বিশ্বাস করিতে পারিবে না। পরিবে শুধু তখন যখন ধর্মের প্রতি মোহ তাহাদের কমিবে, যখন বুঝিবে যে কোন ধৰ্ম্মই হউক তাহার গোড়ামি লইয়া গৰ্ব্ব করার মত এমন লজ্জাকর ব্যাপার, এতবড় বৰ্ব্বরতা মাজুষের আর দ্বিতীয় নাই। কিন্তু সে বুঝার এখনও অনেক বিলম্ব। এবং, জগৎগুদ্ধ লোক মিলিয়া মুসলমানের শিক্ষার ব্যবস্থা না করিলে ইহাদের কোনদিন চোখ খুলিবে কিনা সন্দেহ। আর, দেশের মুক্তিসংগ্রামে কি দেশগুদ্ধ লোকেই কোমর বাধিয়া লাগে ? না ইহা সম্ভব, না তাহার প্রয়োজন হয় ? আমেরিকা ৰখন স্বাধীনতার জন্ত লড়াই করিয়াছিল, তখন দেশের অর্ধেকের বেশী লোকে ত ইংরাজের পক্ষেই ছিল। আয়ার্ল্যাণ্ডের মুক্তিযজ্ঞে কয়জনে ৰোগ দিয়াছিল ? বে বলশেভিক গভর্ণমেণ্ট আজ রুশিয়ার শাসনদণ্ড পরিচালনা করিতেছে, দেশের লোকসংখ্যার অনুপাতে সে ত এখনও শতকে একজনও পৌঁছে নাই। মানুষ ত গরু-ঘোড়া নয়, কেবলমাত্র ভিড়ের পরিমাণ দেখিয়াই সভ্যাসত্য নিৰ্দ্ধারিত হয় না, হয় শুধু তাহার তপস্তার একাগ্রতার বিচার করিয়া । এই একাগ্র তপস্তার ভার রছিয়াছে দেশের ছেলেদের পরে। হিন্দু-মুসলমান-মিলনের কন্দি উদ্ভাবন করাও তাহার কাজ নহে, এবং ষে-সকল প্রধান রাজনীতিবিদের দল এই ফন্দিটাকেই ভারতের একমাত্র ও অদ্বিতীয় বলিয়া চীৎকার করিয়া ফিরিতেছেন তাহাদের পিছনে জয়ধ্বনি করিয়া সময় নুষ্ট করিয়া বেড়ানও তাহার কাজ নহে। জগতে অনেক বস্তু আছে যাহাকে ত্যাগ করিয়াই তবে পাওয়া যায়। হিন্ধু-মুসলমানমিলনও সেই জাতীয় বস্তু । মনে হয় এ আশা নির্বিশেষে ত্যাগ করিয়া কাজে নামিতে পারিলেই হয়ত একদিন এই একান্ত দুষ্প্রাপ্য নিধির সাক্ষাৎ মিলিবে । কারণ, মিলন তখন গুৰু কেবল একার চেষ্টাতেই ঘটবে না, টৰে উত্তরের আন্তরিক ও সমগ্র ৰাসনার ফলে । - —"হিন্ধু-সঙ্গা’, ১৯এ জাখিন, ১৩es