পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (ত্রয়োদশ সম্ভার).djvu/২৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


भब्र९-नंोश्७ि]-न९Gाई দ্বিধাহীন উত্তর আসিল, করি, এবং সমস্ত মন দিয়ে করি। এতবড় বিশ্বাস না থাকলে এতবড় ব্ৰত আমার অনেকদিন পূর্বেই ভেঙে যেত । ভারতী বলিল, তাই বোধ হয় ধীরে ধীরে তোমার কাজ থেকে আমাকে বার করে शिक्र,-मां बांश ? ডাক্তার স্মিতহাস্তে বলিলেন, না, তা নয় ভারতী । কিন্তু, বিশ্বাসই ত শক্তি, বিশ্বাস না থাকলে সংশয়ে ষে কৰ্ত্তব্য তোমার পদে পদে ভারাতুর হয়ে উঠবে। সংসারে তোমার অন্ত কাজ আছে বোন-কল্যাণকর, শান্তিময় পথ, যা তুমি সৰ্ব্বাস্ত;করণে বিশ্বাস কর,—তাই তুমি করগে। অপরিসীম স্নেহবশেই ষে এই লোকটি তাহার একান্ত বিপদসঙ্কুল বিপ্লব-পস্থা হইতে তাহাকে দূরে অপসারিত করিতে চাহিতেছে তাহ নিঃসন্দেহে উপলব্ধি করিয়া ভারতীর সজল চক্ষু অশ্রশ্লাবিত হইয়া উঠিল । অলক্ষ্যে, অন্ধকারে ধীরে ধীরে মুছিয়া বলিল, দাদা, আমার কথায় কিন্তু রাগ করতে পাবে না। এতবড় রাজশক্তি, কত সৈন্যবল, কত উপকরণ, যুদ্ধের কত বিচিত্র ভয়ানক আয়োজন, তার কাছে তোমার বিপ্লবী-দল কতটুকু ? সমূদ্রের কাছে গোম্পদের চেয়েও ত তোমরা ছোট। এর সঙ্গে তোমরা শক্তি পরীক্ষা করতে চাও কোনূ যুক্তিতে ? প্রাণ দিতে চাও দাও গে—কিন্তু এতবড় পাগলামি আমি ত সংসারে আর দ্বিতীয় দেখতে পাইনে। তুমি বলবে, তবে কি দেশের উদ্ধার হবে না? প্রাণের ভয়ে সরে দাড়াবো ? কিন্তু তা আমি বলিনে । তোমার কাছ থেকে, তোমার চরিত্র হতে জননী জন্মভূমি যে কি সে আমি চিনেচি। তার পদতলে সৰ্ব্বশ্ব দিতে পারার চেয়ে বড় সার্থকতা মামুষের যে আর নেই তোমাকে দেখে এ যদি না আজও শিখতে পেরে থাকি ত আমার চেয়ে অধম নারীজন্মে কেউ জন্মায়নি । কিন্তু, নিছক আত্মহত্যা করেই কোন দেশ কবে স্বাধীন হয়েচে ? কোন মতে তোমার ভারতী যে কেবল বেঁচে থাকতেই চায় এতবড় ভুল ধারণা করেও আমার সম্বন্ধে তুমি রেখো না দাদ। ডাক্তার নিশ্বাস ফেলিক্স। বলিলেন, তাই ত । তাই ত কি ? তোমার সম্বন্ধে ভুল হয়েচে বটে। এই বলিয়৷ ডাক্তার কিছুক্ষণ মৌন থাকিয়া কহিলেন, বিপ্লব মানেই, ভারতী, কাট-কাটি রক্তারক্তি লয় । বিপ্লব মানে অত্যন্ত দ্রুত আমূল পরিবর্তন । সৈন্যবল, বিরাট যুদ্ধোপকরণ এ সবই আমি জানি। কিন্তু শক্তি পরীক্ষা ত আমাদের লক্ষ্য নয়। আজ যারা শক্র, কাল তারা বন্ধু হতেও ত পারে। নীলকান্ত শক্তি পরীক্ষা করতে ষান্ধনি, তাদের মিত্র করতে গিয়েই প্রাণ দিয়েছিল । হাম্বরে নীলকান্ত । কেবা তার নাম জানে ।

  • २४**