পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (ত্রয়োদশ সম্ভার).djvu/৭১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পথের দাবী তাহাতে ভয়, অাছেই ত তাহাত উত্তাল তরঙ্গ, আছেই ত তাহাতে কুমীর হাঙর । তরী সেইখানেই ডোবে,- তবু সেইখানেই আছে জগতের প্রাণ,—তারই মধ্যে আছে সকল শক্তি, সকল সম্পদ, সকল সার্থকতা ! নিরাপদ পুকুর লইয়া কেবলমাত্র প্রাণ ধারণ করাটুকুই চলে, বাচ চলে না ! বাবুজী, আপনার খাবার তৈরি । অপূৰ্ব্ব চকিত হইয়া কহিল, রামশরণ, একটা আলো নিয়ে আয় । কাল সকালের গাড়িতেই আমরা মিকৃথিলা যাবো। ম্যানেজারকে একটা খবর দে । আরদালি কহিল, কিন্তু আপনার যে পরশু যাবার কথা ছিল ? না, আর পরও নয়, কালই,—একটা আলো দিয়ে য, এই বলিয়া অপূৰ্ব্ব এ সঙ্গন্ধে আলোচনা বন্ধ করিয়া দিল । সমাজের মধ্যে মেয়েদের স্বাধীনতার একটা নূতন দিক দেখিয়া মন তাহার উদভ্ৰান্ত হইয়া উঠিয়াছিল ; কিন্তু আরও যে দিক আছে যাহার বর্ণ ও আলো সমস্ত গগন উদ্ভাসিত করিয়া তুলিতে পারে, এ দৃপ্ত আজ তাহার মনে স্বপ্নেও উদয় হইল না। পরদিন যথাসময়ে সে মিকুথিলার উদেশে যাত্রা করিল। কিন্তু এখানে আসিয়া তাহার মন টিকিল না । দেশী ও বিলাতি পল্টনের ছাউনি আছে, বাঙালী অনেকগুলি সপরিবারে বাস করিতেছেন—খাসা সহর, নূতন লোকের পক্ষে দেখিয়া বেড়াইবার অনেক বস্তু আছে, কিন্তু এ-সকল তাহার ভাল লাগিল না । মনটা রেজুনের জন্য কেবলই ছট্‌ফট্‌ করিতে লাগিল । ভামোয় থাকিতে রিডাইরেক্ট করা মায়ের একখানা পত্র সে পাইয়াছিল, রামদাসেরও গোটা-দুই চিঠি তাহার আসিয়াছিল, কিন্তু সেও প্রায় দশ-বারো দিন পূর্বে। রামদাস জানাইয়াছিল তাহার ফিরিয়া না আসা পৰ্যন্ত বাসা বদল করিবার প্রয়োজন নাই এবং সে নিজে গিয়া দেখিয়া শুনিয়া আসিয়াছে তেওয়ারীজী মুখে এবং শাস্তিতে বাস করিতেছে। কিন্তু ইতিমধ্যে সে কেমন আছে, তাহার মুখ-শান্তি বজায় আছে, কিংবা দুইই অস্থহিত হইয়াছে— কোন খবরই তাহাকে দেওয়া হয় নাই। খুব সম্ভব সমস্তই ঠিক আছে, ব্যাঘাত কিছুই হয় নাই, কিন্তু তবু একদিন সে ভামোর মতই হঠাৎ জিনিসপত্র বঁাধিয়া স্টেশনের জন্য গাড়ি ডাকিতে হুকুম করিয়া দিল । এই স্থানটাকে মনে রাখিবার মত কিছুই তাহার ঘটে নাই, যৎসামান্ত কাজ-কর্শের মধ্যে বিশেষত্ব কিছুই ছিল না, কিন্তু ছাড়িয়া যাইবার মিনিট পনর পূৰ্ব্বে স্টেশনে আসিয়া এমন একটা ব্যাপার ঘটিল যাহা আপাততঃ সামান্ত ও সাধারণ বোধ হইলেও ভবিষ্যতে বহুদিন তাহাকে স্মরণ করিতে হইয়াছে। একজন মাতাল বাঙালীর ছেলেকে রেলের লোক ট্রেন হইতে নামাইয়াছে। পরণে তাহার মলিন ও ছিন্ন হাটকোট প্রভৃতি বিলাতি পোষাক। সঙ্গে কেবল একটা ভাঙা ... b3,