পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (নবম সম্ভার).djvu/৪২৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অপ্রকাশিত রচনাবলী শিবরতন তাহার হিসাবের খাতার প্রতি পুনরায় দৃষ্টি আনত করিয়া জবাব দিলেন, র্তাকে ব’লো, দাদা একে বাজে খরচ বলেও মনে করেন না, চিঠিপত্রে আভাস দেওয়াও দরকার ভাবেন না । যোগীন, তামাক দিয়ে যা । বিভূতি পাংশু-মুখে স্তন্ধ হইয়া বসিয়া রহিল এবং শস্তু দাদার আনত মুখের প্রতি কটাক্ষে চাহিয়া হাতের খবরের কাগজে মনোনিবেশ করিল। কিছুক্ষণ পৰ্য্যন্ত কাহারে মুখেই কথা রহিল না,—একটা অবাঞ্ছিত নীরবতায় ঘর ভরিয়া রহিল। কিন্তু ইহার অর্থ বুঝিতে হইলে এই মৈত্রেয়-বংশের ইতিবৃত্তটাকে আরও একটু পরিস্ফুট করা প্রয়োজন। এই বিরাজপুরে ইহাদের সাত-আট পুরুষেরও অধিককাল বাস হইয়া গেছে, অনেক ঘর-দ্বার ভাঙ্গাগড়া হইয়াছে, অনেক ঘর-দ্বার আবশ্বক-মত বাড়ানো কমানো হইয়াছে। কিন্তু সাবেক-দিনের সেই রন্ধনশালাটি আজও তেমনি একমাত্র ও অদ্বিতীয় হইয়াই রহিয়াছে। কখনো তাহীকে বিভক্ত করা হয় নাই, কখনো তাহাতে আর একটা সংযুক্ত করিবার কল্পনা পৰ্য্যন্ত হয় নাই। এই পরিবার চিরদিন একান্নবৰ্ত্তী, চিরদিনই যিনি বড়, তিনি বড় থাকিয়াই জীবনপাত করিয়া গেছেন,— পরে জন্সিয়া অগ্রজের সর্বময় কর্তৃত্বকে কেহ কোনদিন প্রশ্ন করিবার অবকাশ পৰ্যন্ত পায় নাই । সেই বংশের আজ যিনি বড়, সেই শিবরতন যখন ছোট ভাইয়ের অত্যন্ত দুরূহ সমস্তার শুধু কেবল একটা ‘প্রয়োজন নাই বলিয়াই নিম্পত্তি করিয়া দিলেন, তখন বড়মানুষ শ্বশুর-শাশুড়ীর নিরতিশয় ক্রুদ্ধ মুখ মনে করিয়াও বিভূতির এমন সাহস হুইল না যে, এই বিতর্কের একটুকুও জের টানিয়া চলে। চাকর তামাক দিয়া গেল, শিবরতন খাতা বন্ধ করিয়া তাহা হাত-বাক্সে বন্ধ করিয়া অত্যন্ত ধীরে-সুস্থে ধূমপান করিতে করিতে বলিলেন, তোমার ছুটি আর ক'দিন রইল বিভূতি ? আজ্ঞে ছ’দিন । শিবরতন মনে মনে হিসাব করিয়া বলিলেন, তা হলে শুক্রবারেই তোমাকে রওনা হতে হবে দেখছি । 嗜 বিভূতি যুদ্ধকষ্ঠে বলিল, আজ্ঞে দ্বা। কিন্তু এই সময়টায় বড় বেশী কাজকৰ্ম্ম, তাই— শিবরতন কছিলেন, তা বেশ । না হয়, দু’দিন পূৰ্ব্বেই যাও। দেবীপক্ষ-দিনক্ষণ দেখার আর আবশ্বক নেই-সবই স্থদিন। তা হলে পরও বুধবারেই রওনা হয়ে পড়, কি বল ? 8ՖԳ