পাতা:শরৎ সাহিত্য সংগ্রহ (প্রথম সম্ভার).djvu/১১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উীকান্তু প্রভূর সর্বাপেক্ষ স্নেহের পাত্র হইয়াছিলাম, এবং টিকিয়া থাকিলে তাহার সন্ন্যাসীলীলার অবসানে উত্তরাধিকার-স্বত্রে টাটু, এবং উট দুটা যে দখল করিতে পারিতাম, তাহাতে কোন সংশয় নাই। যাক, হাতের লক্ষ্মী পায়ে ঠেলিয়া, গত কথা লইয়া পরিতাপ করিয়া লাভ নাই । ছেলে দুটি সারিয়া উঠিল । মারী এইবার প্রকৃতই মহামারীরূপে দেখা দিলেন। এ ষে কি ব্যাপার, তাহ যে না চোখে দেখিয়াছে, তাহার দ্বারা লেখা পড়িয়া, গল্প শুনিয়া বা কল্পনা করিয়া হৃদয়ঙ্গম করা অসম্ভব । অতএব এই অসম্ভবকে সম্ভব করিবার প্রয়াস আমি করিব না। লোক পালাইতে আরম্ভ করিল—ইহার আর কোন বাচবিচার রহিল না। যে বাড়িতে মানুষের চিহ্ন দেখা গেল, সেখানে উকি মারিয়া দেখিলেই চোখে পড়িতে পারিত—শুধু মা তার পীড়িত সন্তানকে আগলাইয়৷ বসিয়া আছেন । রামবাবুও তাহার ঘরের গরুর গাড়িতে জিনিসপত্র বোঝাই দিলেন। অনেকদিন আগেই দিতেন, শুধু বাধ্য হইয়াই পারেন নাই। দিন পাঁচ-ছয় হইতেই আমার সমস্ত দেহটা এমনি একটা বিশ্ৰী আলস্তে ভরিয়া উঠিতেছিল যে, কিছু ভাল লাগিত না। ভাবিতাম রাতজাগা এবং পরিশ্রমের জন্যই এরূপ বোধ হইত। সেদিন সকাল হইতেই মাথা টিপ টপ করিতে লাগিল। নিতান্ত অরুচির উপর দুপুরবেলা যাহা কিছু খাইলাম, অপরাহ্লবেলায় বমি হইয়া গেল। রাত্রি নটদশটার সময় টের পাইলাম জর হইয়াছে। সেদিন সারারাত্রি ধরিয়াই তাহাদের উদ্যোগ আয়োজন চলিতেছিল, সবাই জাগিয়া ছিলেন। অনেক রাত্রে রামবাবুর স্ত্রী বাহিরের ঘরে ঢুকিয়া বলিলেন, সন্ন্যাসীদাদা, তুমি কেন আমাদের সঙ্গেই আরা পৰ্য্যন্ত চল না । আমি বলিলাম, তাই যাব। কিন্তু তোমাদের গাড়িতে আমাকে একটু জায়গাদিতে হবে । ভগিনী উৎসুক হইয়া প্রশ্ন করিলেন, কেন সন্ন্যাসীদাদা ? গাড়ি ত দুটোর বেশী পাওয়া গেল না—আমাদের নিজেদেরই যে জায়গা হচ্ছে না। আমি কহিলাম, আমার হাটবার যে ক্ষমতা নেই দিদি ! সকাল থেকেই বেশ জর এসেচে । জর ? বল কি গো ? বলিয়া উত্তরের অপেক্ষ না করিয়াই আমার নূতন ভগিনী মুখ কালি করিয়া প্রস্থান করিলেন। কতক্ষণ পরে ঘুমাইয়া পড়িয়াছিলাম, বলিতে পারি না। জাগিয়া উঠিয়া দেখিলাম, বেলা হইয়াছে, বাড়ির ভিতর ঘরে-ঘরে তালা বন্ধ-জনপ্রাণী নাই । 9\ צצ 為電ー>●