পাতা:শ্রীশ্রীহরি লীলামৃত.djvu/২০৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৯৪ | এইরূপে প্রভু সঙ্গে ভক্তের বিহার। গেল দিন কহে দীন রায় সরকার ॥ মহাপ্রভুর লালচাদের ভবনে উপস্থিত। পয়ার । ** তথা হ’তে ভোজন করিয়া ত্বরাম্বিত । " লাল চাদ ভবনেতে প্রভু উপনীত ॥ পশ্চিম দুয়ারী ঘর পুবের পোতায় । বসিলেন প্ৰভু সেই ঘরের পীড়ায় ॥ - ভক্তগণ কেহ কেহ বসেছে পীড়ায় । কেহ কেহ বসিলেন তাহার নীচায় ॥ ইতি পুৰ্ব্বে এই লীলা প্রথম সময় । পাগল বলিয়৷ খ্যাতি যাহার ধরায় ॥ পুৰ্ব্ব পুৰ্ব্ব মহাজন তাদের বারতা। স্বয়ং প্রভু কহিছেন সেই সব কথা ॥ মহাপ্রভু কহে কথা শুনিতে মধুর। মধুর হতে মধুর অতি সুমধুর ॥ এইরূপে ইষ্ট গোষ্ট কৃষ্ণ কথালাপ । আর যত এই দানি পাগল প্রস্তাব ॥ প্রভু হরিচাদ কহে লালচাদ ঠাই । তোর বাড়ী বেত আছে শুনিয়াছি তাই ॥ -- লালচাদ কহে প্রভু ভাল বেত আছে। লতিয় উঠেছে বেত বড় বড় গাছে । অই সব বড় আমগাছ দেখা যায়। বেত বেয়ে উঠিয়াছে গাছের আগোয় ॥ বসিয়া দুজমে হইতেছে দেখাদেখি । থলি থলি বেত ফল রহিয়াছে পাকি ॥ এই বেত হ’তে দুটি বেত দেহ মোরে । আর এক ইচ্ছা বেত ফল খাইবারে । লালচাদ বলে বেত পাকিয়াছে ভারি 1 টান দিলে বেত ফল যাইবেক পড়ি ॥ ফলধরা বেত বড় ভাল নাহি রয় । অফল। পুরান বেত দিব মহাশয় ॥ ঠাকুর বলেন আগে বেত ফল আন । তাহাগুনি মৃত্যুঞ্জয় করিল প্রয়ান। ঠাকুর কহেন আই বেত বড় ভাল। বেশী নহে মাত্ৰ দুটা বেত গিয়া তুল । দুটি বেত তুলিয়৷ আনহ মম ঠাই। বেত তোলা শেষ কথা আগে ফল চাই ॥ - ঐশ্ৰীহরিলীলামৃত । . | SJJSMMMSAASAASAAAS মৃত্যুঞ্জয় দুটি বেত কাটিল কেবল । একটি নিষ্ফল তার একটি সফল ॥ ফল ধরা গাছ কাটি কহে মৃত্যুঞ্জয়। তব ফল লাগিবেক প্রভুর সেবায় । সুপক হ’য়েছ ফল পড়িওন তবু । তোমাকে করিবে সেবা স্বয়ং মহা প্ৰভু ! মৃত্যুঞ্জয় কাঙ্গালী তারক তিনজন । বেত টনি বাহির করিল ততক্ষণ। বেত ফল তুলি, ধরি লইল বাটতে। ঝাড় দিল থলি ধরি পাত্র উপরেতে ॥ একঝাড় দিলে সব ফল পড়ি যায় ॥ অৰ্দ্ধ আৰ্দ্ধ খোসা মাত্র রহিল বোটায় ॥ অবশিষ্ট অৰ্দ্ধ খোসা বাছিয়া ফেলিয়া । ঠাকুর সম্মুখে দিল কর্ণসন্দ মাখিয় ॥ একমুষ্টি ধরি প্রভূ দিলেন বদনে । বলে মৃত্যুঞ্জয় ভাল খাওয়ালি এখনে ॥ কোথা লাগে আম আর কোথা লাগে দুধ। বেত ফল মিঠা যেন বিদুরের খুদ ॥ আম ফল খাইতেছি দুই তিন দিন । হটাতে এ বেত ফল খাই দৈবাধিন ॥ বিদুরের বাড়ী কৃষ্ণ থান এক দিন। সেই এক দিন আর এই এক দিন ॥ প্রভূ বলে দুটি বেত কাটিলে যতনে । একটা আনিলে ওটা গাছে র’ল কেনে ॥ সেই বেত বাহির করিল তিন জনে। মৃত্যুঞ্জয় কহিছেন কাঙ্গালীর স্থানে ॥ ভাল ভাল কত বেত আছে এই গাছে । দুটি বেত লই কেন ? কত বেত আছে ৷ প্রভু আজ্ঞ দুটি বেত আর এক ল’ব । তাতে কি প্রভুর কাছে অপরাধী হ’ব ৷ লাগিবে প্রভুর কাৰ্য্যে মন্দ হ’বে কিসে। তাই ভেবে আর এক বেত কাটে শেষে ॥ বেত কাটি তিন জনে ধরি টান পাড়ে। থাক মনে বেত পাড়া পাতা নাহি লড়ে ॥ যারে দেখে তারে ডাকে হাত উঠাইয়া। এক এক জন করি বেত টানে গিয়া ॥ এক এক জন করি ধরিতে ধরিতে। চৌদ্দ জনে বেত টানে না পারে নাথাতে ॥ নাহি ছিড়ে নাহি পড়ে ন লড়ে না সরে । আমের গাছের ডাল কড়মড় করে ॥

  • م-۔میہ۔