পাতা:শ্রীশ্রীহরি লীলামৃত.djvu/৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।


লেখা সমাপ্তি পরে, ও এই গ্রন্থ মুদ্রা-অভাবে মুদ্রিত হয় না। সুতরাং কবি রসরজ মহাশয় ও তাহার অযোগ্য শিষ্য হরিবর সরকার, দীন-ভিখারী হইয়া ভিক্ষা করায়, “ভিক্ষা লব্ধ” কিছু অর্থ সংগৃহীত হইয়াছিল। গত ১৩২১ সালের ১লা অগ্রহায়ণ গুরুপাদ কবি-রসরাজ মহাশয়, ইহজগতের মায়া-মমতা বিসর্জ্জন দিয়া, প্রভুর সেবা কার্য্যে নিযুক্ত হইয়াছেন।

সুতরাং, নানা কারণে, প্রধানতঃ অর্থানটনে, গ্রন্থ মুদ্রিত হইল না। অতঃপর ওঢ়াকাঁদির সম্প্রদায় ভুক্ত সাধুপাধিক উদার-চেতা খুলনা জিলান্তর্গত লক্ষীখালী–নিবাসী–শ্রীযুক্ত গোপালচন্দ্র হালদার মহাশয় সম্পুর্ণ ব্যয় ভার বহন করিয়াছেন। তাহার স্বেচ্ছাদান ও উদার চরিত্রে মহাপ্রভুর লীলা-গীতি এতদিনে পরিসমাপ্ত হইল। অত্র-গ্রন্থে–মহাপ্রভুর জন্মাসুষ্ঠান; জন্ম, প্রভুপাদ শ্রীশ্রীরামকান্ত গোস্বামী কর্ত্তৃক ভক্তি-ভাবের নব অবতারণা, ও প্রভুর বাল্য লীলা, বিবাহ, গার্হস্থ্য-ধর্ম্ম প্রকাশ, প্রভুত্ব প্রকাশ, উপদেশপূর্ণ-রচনাবলী, লীলাপ্রকাশ প্রাচুর্য্য, কৃষিকার্য্য, বাণিজ্য, শ্রীক্ষেত্র হইতে শ্রীশ্রীজগন্নাথ দেব কর্ত্তৃক প্রসাদ প্রেরণ, এবং প্রভু ভক্তের উদার চরিত্রে; প্রভৃতি লিপিবদ্ধ হইল।

অপিচ –

এই গ্রন্থে অনেক আশ্চর্য্য ঘটনার বিবরণ লিপিবদ্ধ হইয়াছে। অধুনা পাশ্চাত্য শিক্ষার প্রভাবে, শিক্ষিত সম্প্রদায়ের মধ্যে, আশ্চর্য্য ঘটনাবলীর সত্যতার বিশ্বাস স্থাপন করিবার অক্ষমতা দৃষ্ট হয়। এই সম্প্রদায় কে আমার বক্তব্য এই;–

এই আশ্চর্য্য বিচিত্রতা পুর্ণ জগতের বিশেষতঃ ধর্ম্ম জগতের ঘটনাবলী, মানুষের চক্ষে, সমস্তই আশ্চর্য্য পূর্ণ। ধর্ম্ম জগতের ইতিহাসে, সকল সম্প্রদায়ের মধ্যেই, অতীব আশ্চর্য্য ঘটনার বিবরণ দৃষ্ট হয়। শ্রীশ্রীমহাপ্রভু চৈতন্য দেবের জীবনের ঘটোনাবলী, সমস্তই আশ্চর্য্য ঘটনা পূর্ণ। এমন কি পাশ্চাত্য জগতের ধর্ম্ম প্রভু যীশুর জন্ম জীবনী ও কার্য্য কলাপ অত্যাশ্চর্য্য ঘটনায় পরিপূর্ণ। কিন্তু তাই বলিয়া এই সমস্ত ঘটনাবলীর, সত্যতায় কেহই সন্দিহান হন না।

আরও একটা কথা।

মানুষের শক্তি ও জ্ঞান অতি ক্ষুদ্র। সেই জ্ঞানকে জাগতিক ঘটনাবলী মানুষের জ্ঞান ও শক্তিকে, উত্তরোত্তর পরিবর্ত্তিত করিতেছে, ভবিষ্যতে আরও করিবে। কবি-রসরাজ মহাশয় মহাপ্রভুর সাময়িক শিষ্যগণের প্রমুখাৎ যে সমস্ত ঘটনাবলী শ্রুত হইয়াছেন, তাহা এবং তিনি প্রভুর সঙ্গে থাকিয়া চাক্ষুস যাহা দেখিয়াছেন, তাহা ঠিক সেই স্থানে উপস্থিত হইয়া এ বিষয় প্রমাণ করিলে, যতটুকু লেখা হইয়াছে, তদধিক রূপে প্রমাণিত–হইবে। এই গ্রন্থ মহাপ্রভুর শিষ্যগণের মধ্যে যে অতীব আদরণীয় হইবে, এ বিষয় অনুমাত্র সন্দেহ নাই। বিশেষতঃ মহাপ্রভুর শিষ্য সম্প্রদায় বহির্ভুক্ত শিক্ষিত সম্প্রদায় ও এই গ্রন্থে অনেক জ্ঞাতব্য বিষয় অবগত হইবেন। কিমধিক মিতি–

নিবেদক শ্রীহরিবর সরকার