পাতা:সংবাদপত্রে সেকালের কথা প্রথম খণ্ড.djvu/৪৬২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


$决$ শংবাদ পত্রে মেকাল্ডেনৰ কথা يعها —কমলাকাস্ত বিদ্যালঙ্কার, আড়কুলি, ৬ ঐ –গোবিন্দ তর্কপঞ্চানন, ঐ, ৫ ঐ –পীতাম্বর ষ্ঠায়ভূষণ, ঐ, ৫ ঐ —পাৰ্ব্বতী তৰ্কভূষণ, ঠনঠনিয়া, ৪ ঐ —কাশীনাথ তর্কালঙ্কার, ঐ, ৩ ঐ —রামনাথ বাচস্পতি, শিমলা, ৯ ঐ —রামতনু তর্কসিদ্ধান্ত, মলঙ্গ, ৬* ঐ --রামতম বিদ্যাবাগীশ, শোভাবাজার, ৫ ঐ —রামকুমার তর্কপঞ্চানন, বীরপাড়া, ৫ ঐ --কালীদাস বিদ্যাবাগীশ, ইটালী, ৫ ঐ —রামধন তর্কবাগীশ, শিমলা, ৫ ঐ । হুগলীর অনতিদূরে বঁাশবেড়িয়ায় ১২-১৪টি চতুষ্পাঠী আছে ; সেখানে প্রধানতঃ স্তায়শাস্ত্রেরই অধ্যাপনা হয় । ত্রিবেণী, কুমারহট্ট, ও ভাটপাড়ায় এইরূপ ৭-৮টি চতুষ্পাঠী আছে। কয়েক বৎসর পূৰ্ব্বে জগন্নাথ তর্কপঞ্চানন ত্রিবেণীর একটি বড় চতুষ্পাঠীর অধ্যাপক ছিলেন । বেদেও ৰ্তাহার কিছু কিছু অধিকার ছিল, এবং বেদান্ত, সাংখ্য, পাতঞ্জল, ন্যায়, স্মৃতি, তন্ত্র, কাব্য, পুরাণ ও অন্যাঙ্ক শাস্ত্র অধ্যয়ন করিয়াছিলেন বলিয়। জানা যায়। পণ্ডিতশ্রেষ্ঠ এবং বাংলা দেশের প্রাচীনতম ব্যক্তি বলিয়া "tহার থাতি আছে মৃত্যুকালে টাঙ্গার ১০৯ বৎসর বয়স হইয়াছিল If গোন্দলপাড় এবং ভদ্ৰেশ্বরে প্রায় ৮টি করিয়া নায়-চতুষ্পাঠী আছে । জয়নগর এবং মজিলপুরে রূপ ১৭-১৮টি চতুষ্পাঠী দেখা যায় ; আন্দলে ১০-১২টি, বালী ও অন্যান্য স্থানে ২-৩-৪টি চতুষ্পাঠী আছে । હૈં ১৮২২ সনে প্রকাশিত, ৩০শ সংখ্যা সম্বাদ কৌমুদী’তে চাতরায় শঙ্করসিদ্ধাস্ত ভট্টাচার্য্যের চতুষ্পাঠীর ūtāq with ( Calcutta Journal, 18 July 1822, p. 251.) 擊 笨 。樂 অ্যাডাম সাহেব ১৮৩৫-৩৬ সনে বাংলা দেশে শিক্ষার অবস্থা সম্বন্ধে যে রিপোর্ট সরকারের নিকট দাখিল করিয়াছিলেন তাহাতে বাংলা দেশের বহু চতুষ্পাঠীর কথা আছে । এই সকল চতুষ্পাঠীর কয়েকটির কথ। সংক্ষেপে উল্লেখ করিতেছি – নদীয় রামচন্দ্র বিদ্যালঙ্কারের দ্যায়-চতুষ্পাঠী । সরকার ইহার জন্য বার্ষিক ৭১২ টাকা সাহায্য করিতেন । ১৮১৩ সনে বিদ্যালঙ্কারের মৃত্যু হইলে তাহার পুত্র ভোলানাথ শিরোমণি চতুষ্পাঠীর ভার গ্রহণ করেন । র্তাস্থার সময়েও সরকারী সাহায্য পুৰ্ব্ববং বজায় ছিল। শঙ্কর তর্কবাগীশের ন্যায়-চতুষ্পাঠী । এই চতুষ্পাঠীর জন্ত সরকার বার্ষিক ৯০ টাকা সাহায্য করিতেন । তর্কবাগীশের মৃত্যুর পর তৎপুত্র শিবনাথ বিদ্যাবাচস্পতি ১৮১৮ সনের জুন মাসে আবেদন করিলে সরকারী সাহায্য পূৰ্ব্ববং বজায় থাকে । স্ত্রীরাম শিরোমণির চতুষ্পাঠী । ছাত্র-সংখ্যা ৩। নাটোরাধিপতি এই চতুষ্পাঠী প্রতিষ্ঠা করেন ; ইহার পরিচালনের জন্ত তিনি আর্থিক ব্যবস্থাও করিয়া যান । ১৮১৯ সনের নবেম্বর মাসে শিরোমণি সরকারের নিকট আর্থিক সাহায্যের আবেদন করিলে তাহাকে বার্ষিক ৩৬ টাকা মঞ্জর করা হয় । রামজয় তর্কবঙ্কের ৷ তর্কালঙ্কার ? ] চতুষ্পাঠী ছাত্র-সংখ্যা ৫ । এই চতুষ্পাঠীর জষ্ঠ ১৮১৯ সনে সরকার বার্ষিক ৬২ টাকা মঞ্জুর করেন।

  • রামমোহন দত্ত ইহাঙ্গের ব্যয়ভার বহন করেন ।

SS S BBBBB BBBBB BBBBB DDDDB BBB DDBB BBBBBBD DBB BB BBB BBD BBBBB ASBBB BBBB BBBBBDSDDDDS DBB BBeeSgS BAAA AAAA S SLLLLLL LLLLLLLLLLL Tarka-panchanan,” Modern Review - Novr. 1926 (pp. 493-96), Sep, 1929 (pp.261-62.)]