পাতা:সচিত্র রেল অবতার - অনাথবন্ধু সেন.pdf/৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

রেল অবতার।

নেশাখোরের ইসারা।

 আবশ্যক হইলে রেলের লোকেরা এক ষ্টেসন হইতে অন্য ষ্টেসনে বিনা পয়সায় টেলিগ্রাম পাঠাইয়া থাকেন। অবশ্য এ বন্দোবস্তটা তাঁহাদের নিজেদের মধ্যে। কোম্পানীর এমন কিছু নিয়ম নাই, যে, তাঁহারা এ সুবিধাটা ভোগ করিতে পারিবেন। এক ষ্টেসন হইতে অপর ষ্টেসন পর্যন্ত তারের সংযোগ থাকিলেই খবর পাঠান যায়। এই রকম খবর পাঠানোর নাম—“প্র্যাকটিশ্” দেওয়া। গরীব, অল্পবেতনের কর্ম্মচারীরা, প্রয়োজন মত এরূপ ‘প্র্যাকটিশ্’ ত দিয়াই থাকে—বেশী মাহিনার বড় বড় রেলের সাহেবেরাও এ সুবিধাটা ছাড়েন না।

 রাত্রি প্রায় ৯॥ টার সময়, সান্তাহারের বড় তারবাবু একটু ব্যস্ত ভাবে আসিয়া, অপর একটি তারবাবুকে বলিলেন—“ওহে কালী, সারাঘাটকে ডেকে ধ’রত। একটা জরুরী প্র্যাকটিশ্ আছে—এ টা, সেখান থেকে দারজিলিং মেল ছাড়্ বার আগেই দিতে হবে। এই সময়েই দিতে পার‍্লে ভাল হয়—না হলে, কাজের ভিড়ে সারাঘাটকে আর ডেকে পাওয়া যাবে না।”

 কালী বাবু ‘সারাঘাট’—‘সারাঘাট’—করে ডাকতে আরম্ভ করলেন।