পাতা:সাহানামা.djvu/৩৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৩৩ই সাহানাম জনেক পণ্ডিত ও হকিমকেজাপন নিকটরাখিল, এবং ফল। উর প্রধান শিষ্য আরস্তাভালিছকে আপন মন্ত্রি করিল এছন্দরের বিশেষ বিবরণ ইহাবপর অবগত হইবা এখানে দারাবের আর এক স্ত্রী হইতে একপুঞ্জ হইল তাহারনাম দার রাখিল,যখন দার। বয়ঃপ্রাপ্ত হইল তখন দারাবের লোক স্তর গমন হইল । চৌদবৎসর চরিমাস দারাব বাদসাহি করিয়া আপন পুণ্ড দারাকে বাদসাহিতে অভিসেক করিয়া সগ যাত্রা করিল। দারাবের বাদসাহির বিবরণ । দয়াৰ বাদসাহ হইয়া পৈত্রিক নিয়মানুসারে রাজকাৰ্য্য করিতে আরম্ভ করিল আর যে ২ বাদসাহর নিকট হইতে দারাব কর গ্রহণ করিত তাহাদিগের নিকটে দূত পাঠাইয়া করেরটাক আনাইলা কেবল যেদুত রোমদেশে ফয়লকুছের পুএ এছকন্দরের নিকট গিয়ছিল সেকহিল এছকন্দর কর দিলন, কিছুদিনপরে দার। এছকন্দরকে একপত্রলিখিল যে পুস্থাপর যেৰপ করদিয়া আসিভেছ তা অনেক দিবস পাঠাও নাই এই দুতের সমভিব্যাহারে পাঠাইবা, এইপত্র দতদ্বারা এছকন্দরের নিকটে রোমদেশে পাঠাইল । এছক দরপত্র পাইয়া উত্তর লিখিল যে আমার পিতা ফুলকুছ তোমার পিতা দারাব কেকর দিতেন সেসময় গতৌ হইয়াছে কালের গতি সৰ্ব্বদা সমান থাকে না এখন ৰমি আমাকে কয় দেও নহব। আমি তোমার সঙ্গে যুদ্ধ করিয়া তোমার ইরান লইব, আর স্তমি এমত জ্ঞান করিব না যে আমি কেবল ইরান লইয়া ক্ষেন্ত থাকিব আমার বাএছ সমস্ত