পাতা:স্বর্ণ-শৃঙ্খল নাটক.pdf/৯১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ዓbr স্বর্ণ-শৃঙ্খল নাটক । ব্যাঘ্ৰমুখে কুরঙ্গিণীর ন্যায় ব্যাকুল হইয় রাজা যুধিষ্ঠিরের প্রতি দৃষ্টি করিয়া করিতে লাগিলেন “রক্ষ নাথ রক্ষ রক্ষ! আমি সিংহ-গৃহিণী শৃগাল দ্বারা আমার তিরস্কার” বারম্বার এইরূপ কাতরোক্তি করাতে রাজা যুধিষ্ঠির সজল জলদের ন্যায় গম্ভীরস্বরে কহিলেন:“ভদ্রে ! দেখ,সিংহের এক্ষণে ক্ষমতা কি ? ধৰ্ম্মরূপ সত্যরূপ সুবর্ণগৃঙ্খলে বদ্ধ রহিয়াছে, অতএব যিনি হংসকে শুক্লবৰ্ণ করিয়াছেন, যিনি শুককে হরিদ্বর্ণ করিয়াছেন, যিনি ময়ূরকে চিত্রিত করিয়াছেন, সৰ্ব্বতাপহীরক সৰ্ব্বদুঃখবিমোচক, ধৰ্ম্মস্বরূপ, সত্যস্বরূপ, পাপপুণ্যের দ্রষ্টা, ভক্তবৎসল, সেই ভগবানকে স্মরণ কর।” এই কথা শ্রবণ মাত্র দৌপদী নয়নদ্বয় মুদ্রিত করিয়া ভগচ্চরণারবিন্দে মনোনিবেশ করিলেন, দুঃশাসনও বস্ত্র হরণ করিল, কিন্তু কি চমৎকার ব্যাপার, বলিতে শরীর লোমাঞ্চিত হয়, বস্ত্র হরণ করাতে উলঙ্গ না হইয়। র্তাহার দেহ অন্ত বস্ত্র দ্বারা পূৰ্ব্ববৎ আচ্ছাদিত রহিল, দুঃশাসন সে বস্ত্র হরণ করাতে অন্য বস্ত্র দ্বারা দৌপদীর শরীর পুনরাচ্ছাদিত হইল। এই রূপে পুনঃ পুনঃ যত বস্ত্র হরণ করে, তত নুতন নুতন বস্ত্রে দৌপদীর দেহ আবৃত হয় । এইরূপে স্তুপে স্তপে নানা প্রকার নানা বর্ণের বস্ত্র যে কতই একত্র হইল, তাহার সংখ্যা নাই । কোথা হইতে যে বস্ত্র সকল আইসে, কে যোগায়, কেহই দেখে না । দুঃশাসন বস্ত্রহরণশ্রমে এককালে শ্রাস্ত হইয়া পড়িল । সভাস্থ সকলে এ প্রকার অসম্ভব দৈব লীলা দৃষ্টি করিয়া স্তন্ধীভূত হইয়া পরস্পর মুখাবলোকন করিতে লাগিল । আর যে সকল নগরবাসী লোক সভা