পাতা:অবলা প্রবলা.djvu/৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२७ অবল প্রবল ৷ হত, মনে মনে গণয় প্রমাদ । ঠকে তাল যেন কাল, কোন ঠাই ধায় মাল, ইট পাট পদ ঘায় গুড়া। কেহ করে গণ্ডগোল, কেব। শুনে কার বোল, কেহ কানো থেয়ে লার্থী হড়া । কেহব বুঝায় তায়, কেহ রাগি তারে ধায়, দুপ দাপ করে মারা মারি। ভয়ানক ধরি বেশ, কে কাহারে মারে ঠেশ, কেছ কর কেহ কেশ ধারী । কোন জল থেয়ে মারি, ন. য়নে বহিছে বারি; পলায়ন করে কোন ঠাই। ভাট বলে এই বার,কিৰূপে ছুইব পার, আর বার ঘটিল বালাই। ধরিয়৷ সাহ্ম কায়, যাইতে দুয়ারী তায়, জিজ্ঞাসা করিল কোন্ হায় । জানিয়া বৃত্তান্ত তার, ছাড়িল আপন দ্বার, ভাট বলে বাচিলাম হায় । প্রবেশিয়া ষষ্ঠ দ্বারে, নিরথিল পুনর্বারে ছৈয়াদ মল্লিক অাদি গণ । ঘাটি ঘাটি রক্ষা করে, সোট। লাঠী করে করে, নিজ নিজ স্থানে নিয়োজন । গলি পলশীয় জাতি, ফুলায়ে বুকের ছাতি, ফেরে করে ধরে অস্ত্র শণ। সুইজ সন্ধব যত,চারি ভিতে অবিরত, সবে করে শুলুক সন্ধান । পাইলে ছি লাল চোর, অমনি করয় শোর, বজোরে বিকট করে নাদ । নষ্ট্রে গণে কষ্ট তায়, সাধুর সঙ্কট যায়, ভয়ে প্রাণ হয় অবসাদ । ফাসিয়া ফেরেব যারা,