পাতা:অমরনাথ (কৃষ্ণচন্দ্র রায় চৌধুরী).pdf/২২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२२७ অমরনাথ ! ভাবি যারে অহরহ, সে আর তার বিরহ, একত্রে করে বসতি, মম হৃদয় কন্দরে ॥ যেমন বরিষাকালে, কভু হয় একেকালে, ভানুর কিরণ আর, বরিষণ জলধরে ॥ শুনলেন অমৃত বাৰু! আমার একি ভাব বলুন দিখি ? মুখাবহ দুঃখ, দুঃখাবহ মুখ ; উষ্ণ বরফ, শীতল বহ্নি ; অমৃতময বিষ, বিষম্য অমৃত ; সুস্থ পীড়া, পীড়িত স্বাস্থ্য ; মৃত জীবন, জীবিত মৃত্যু ; ছাগমুখ বাগ, বাগমুখ ছাগ ; গুপো মেযে মানুষ । অমৃত । (ডাক্তারেব প্রতি ) ঐ দেখুন বেশ বোল্‌ছিল, এব মধ্যে বাঘ মুখ ছাগ, গুপে মেয়ে— গণেশ। থাকুন থাকুন, অমৃত বাবু একটু থাকুন আমি একটা কথা কোয়ে নেই। আচ্ছ। উনি যে বোললেন গু পো মেয়ে মানুষ । আচ্ছ সে ভালই কথা । আচ্ছ তা গুপো মেয়ে মানুষ যদি হোতে পাবে, তবে— তোমার ওন্নাম কি—তবে তো দেড়ে মেয়ে মানুষও হোতে পারে ? হা হা হা दश् छ् छ्ॉ8 ! (শীতলের হস্ত ধারণ করিয়া এক হেঁচুক টান দিয়া) অারে কি কোচ্ছহে, শুনলে না ? শীতল। (উচ্চস্বরে) হাঃ হাঃ হাঃ । বা-বা-বা-সবজিত বাবা ? গণেশ ! কি মজার বাহার, কি মজার বাহার, আজ অনেক দিনের পরে অমৃত বাবু আসাতে কি মজার বাহার } গোবিন্দ। (গাত্রোথান করিয়া) কি ? এত বড় কথা ? এত অপমান ; আমি এই খেনে বোসে থাকতে আমার সাম্নে এই কথা! এই গোবিন্দ শৰ্মা চেtললেন । এখানে যদি আর জল গ্রহণ করি তো সে গোহাড় গোরক্ত ।