পাতা:অসমীয়া সাহিত্য.pdf/৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অসমীয়া সাহিত্যের শৈশব ও কৈশোর 良á তৎকালীন গ্রামীণ সভ্যতার বড় পরিচয় পাওয়া যায় ডাকভণিতার কৃষিলক্ষণ বাষলক্ষণ প্রভৃতি বচনগুলিতে— গর কিনিবা চিকণ জালি দুই চারি ছয় দন্তীয়া ভালি হরিণর সমান জিহবা কাণ হেন বলদ বিচার আন। জ্যোতিষপ্রকরণে দেখি— দধি মধ্য ঘাত শুক্ল তন্ডুল শুকুলা চামর শুকুলা ফলে। হংসদৈবজ্ঞ সন্দেরী কন্যা যাত্রার কালত সকলো ধন্যা । এইসব ডাক ভণিতায় সমাজবিন্যাসের নানা স্তরের কথাও পাওয়া যায়— কামারর চিকন অসত্র ধোবার চিকন বস্ত্র আবার ব্যঞ্জনের চিকন কি না হালধি অর্থাৎ হলদে। আজও চিকিৎসাশাস্ত্র ও ঔষধ সম্ববন্ধীয় নানা পুথি আসামের বহস্থোনে ছড়াইয়া আছে। শ্ৰীযুক্ত কালীরাম মেধী একটি ওঝা চিকিৎসকের কাছে ঐরাপ ১১০ খানি প্রাচীন পুথির সন্ধান পাইয়াছিলেন। ছায়াজদরবাণ হইতে আরম্ভ ಇifಾಗೆ ಗಾಢ * * * ಕಣ್ಣ 181 | পবেই বলিয়াছি, ভাব ভাষা বিষয়বস্তুর বিচার করিয়া দেখিলে এইসব পদগুলির কিছু কিছু বৈষ্ণব বা বৈষ্ণবোত্তর যুগের হইলেও ইহারা যে প্রাচীন কিম্বদন্তী ও প্রাকবৈষ্ণবয়াগের মৌখিক লৌকিক সাহিত্যের লিখিত পরিণত রপ, সে বিষয়ে সন্দেহের বিশেষ কারণ নাই। অবশ্য অনেক ভণিতাতে আরবী ও পারসিক শব্দের প্রচলন দেখিতে পাওয়া যায়। অসমীয়া কিম্বদন্তী অনুসারে ডাক বরাহমিহিরের পত্র। মিহিরমনি কামরপ পরিভ্রমণে আসিয়া যে বাড়ীতে আতিথ্য গ্রহণ করেন সেই বাড়ীর কনিষ্ঠা বধর পত্রে হয় নাই। মিহির মানির পরিচষা করিয়া ও আশীবাদের ফলে সে পত্রবতী হয়, এবং সেই পত্রই ডাক । শ্ৰীযুক্ত কালীরাম মেধী অসমীয়া ভাষার কয়েকটি আদিরপ কামরপশাসনাবলী হইতে সংগ্ৰহ করিয়া তাঁহার ‘অসমীয়া ব্যাকরণ আর ভাষাতত্ত্ব’ নামক পসেতকে লিপিবদ্ধ করিয়াছেন। যেমন ‘আম্ভ অথাৎ "আম’ (দশম শতাব্দীর বলবমর্ণ নওগাং তাম্রশাসন ও ত্রয়োদশ শতাব্দীর রত্নপালের স্বয়ালকুচি পট্রোলি) বা কোপা অর্থাৎ কপ বা কয়া (বলবমর্ণর তাম্রশাসন) বা বেঙ্কা অর্থাৎ বাঁকা বা বক্ল (ধৰ্মপালের পম্পেভদ্ৰ পট্রোলি) । এই পট্রোলিতে হাড়ি, সবণদার প্রভৃতি আরও বহন কথা পাওয়া যায়। অসমীয়া সাহিত্যের উৎপত্তি ও প্রসারের মলে রাজনৈতিক সাহায্য ও ধর্মপ্রভাব প্রবল ছিল। পথিবীর সবত্রই দেখা যায় রাজা ভূস্বামী ও রাজপরেষেরাই সাহিত্যিকদের প্রধান পাঠপোষক ছিলেন।