পাতা:আত্মচরিত (৩য় সংস্করণ) - শিবনাথ শাস্ত্রী.pdf/২৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


RR o শিবনাথ শাস্ত্রীর আত্মচরিত [ ৯ম পরিঃ কলিকাতায় আসিয়া কেশব বাবুর ভারত আশ্রমে উঠিয়াছিলেন ; কিন্তু কেশব বাবুর ও র্তাহার অনুগত ভক্তবৃন্দের সহিত মতভেদ ঘটিয়া তাহাকে আশ্রম হইতে বাহির হইতে হইয়াছিল। তিনি কতিপয় ব্ৰাহ্ম বন্ধুর সহিত কিছু দিন স্বতন্ত্র বাসায় থাকিলেন, কিন্তু অতি কষ্টে তাহার দিন নির্বাহ হইতে লাগিল। হরিনাভিতে বাস কালে আমি আমার দ্বিতীয় পত্নী বিরাজমোহিনীকে তাহদের সঙ্গে রাখিয়াছিলাম, এবং প্রতি শনিবার সেখানে আসিতাম। আমি যথাসাধ্য নগেন্দ্র বাবুর ব্যয়ের সাহায্য করিতাম, কিন্তু তাহাতে তঁহার দুঃখ নিবারণ হইত না। তৎপরে আমি যখন ভবানীপুরের সাউথ সুবার্বন স্কুলের হেড মাষ্টার হইয়া আসিলাম, তখন বিরাজমোহিনীকে হরিনাভিতে সাধু উমেশচন্দ্র দত্তের নিকটে রাখিয়া, নগেন্দ্র বাবুকে সপরিবারে আমার ভবানীপুরের বাসায় আনিয়া রাখিলাম ; এবং তঁহাদের সকল ব্যয়ভার বহন করিতে লাগিলাম। এখানে তঁহার একটি সন্তান জন্মিল। কিছু দিন পরে নগেন্দ্র বাবু কলিকাতায় গেলেন । কলিকাতা হেয়ার স্কুলের হেড পণ্ডিত।--ভবানীপুর সাউথ সুবাৰ্ব্বন স্কুল হইতে আমার উৎসাহদাতা ও সহায় রাধিকাপ্রসন্ন মুখুয্যে মহাশয় আমাকে হেয়ার স্কুলে আনিলেন। ১২০২ টাকা বেতনে হেয়ার স্কুলের হেড পণ্ডিত ও ট্রানস্লেশন মাষ্টারের নূতন পদ সৃষ্টি হইল ; সেই পদে আমাকে প্রতিষ্ঠিত করা হইল। রাধিক বাবুর পরামর্শে উড়ো সাহেব আমাকে উক্ত পদ দিলেন। শুনিলাম সাটক্লিফ সাহেব অন্য কাহাকে দিতে চাহিয়াছিলেন ; তাহ রহিত করিয়া ডিরেক্টর উড়ো সাহেব আমাকে এই পদ দিলেন। পূর্বে উড়ো সাহেবের সঙ্গে যে আমার ঝগড়া হইয়াছিল এবং উড়ো সাহেব আমার প্রতি চটিয়া আছেন, রাধিক বাবু তাহ জানিতেন। অনুমান করি, সদাশয় উড়ো সাহেবের তাহা মনে ছিল না, অথবা রাধিকাপ্ৰসন্ন বাবু কৌশল ক্ৰমে সে বিরোধের কথা পশ্চাতে রাখিয়া, আমার