পাতা:আনন্দমঠ - বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


。懿 - जांनन्लभ? বিশেষতঃ মা ছাড়া হইয় অবধি কাদিতেছে, চরকার শব্দ শুনিয়া ভয় পাইয়া আরও উচ্চ সপ্তকে উঠিয়া কাদিতে আরম্ভ করিল। তখন ঘরের ভিতর হইতে একটি সতের কি আঠার বৎসরের মেয়ে বাহির হইল। মেয়েটি বাহির হইয়াই দক্ষিণ গণ্ডে দক্ষিণ হস্তের অঙ্গুলি সন্নিবিষ্ট করিয়া ঘাড় বাকাইয় দাড়াইল। “এ কি এ ? দাদা চরকা কাটো কেন ? মেয়ে কোথা পেলে ? দাদা, তোমার মেয়ে হয়েছে ন কি—আবার বিয়ে করেছ না কি ?” জীবানন্দ মেয়েটি আনিয়া সেই যুবতীর কোলে দিয়া তাহাকে কীল মারিতে উঠিলেন, বলিলেন, “বাদরী, আমার আবার মেয়ে, আমাকে কি হেজিপেজি পেলি নী কি ? ঘরে দুধ আছে ?" তখন সে যুবতী বলিল, “ছধ আছে বই কি, খাবে ?” জীবানন্দ বলিল, “হঁ। খাব।” তখন সে যুবতী ব্যস্ত হইয়া দুধ জ্বাল দিতে গেল। জীবানন্দ ততক্ষণ চরকা ঘেনর ঘেনর করিতে লাগিলেন । মেয়েটি সেই যুবতীর কোলে গিয়া আর কাদে না । মেয়েটি কি ভাবিয়াছিল বলিতে পারি না—বোধ হয় এই যুবতীকে ফুল্লকুসুমতুল্য মুন্দরী দেখিয়া মা মনে করিয়াছিল। বোধ হয় উলনের তাপের আঁচ মেয়েটিকে একবার লাগিয়াছিল, তাই সে একবার কাদিল। কান্না শুনিবামাত্র জীবানন্দ বলিলেন, “ও নিমি! ও পোড়ারমুখি ! ও হনুমানি ! তোর এখনও ফুধ জ্বাল হলো না ?” নিমি বলিল, “হয়েছে ” এই বলিয়া সে পাথর বাটীতে ফুধ ঢালিয়া জীবানন্দের নিকট আনিয়া উপস্থিত করিল। জীবানন্দ কৃত্রিম কোপ প্রকাশ করিয়া বলিলেন, “ইচ্ছা করে যে, এই তপ্ত স্থধের বাট তোর গায়ে ঢালিয়া দিই—তুই কি মনে করেছিস্ আমি খাব না কি ?” নিমি জিজ্ঞাসা করিল, “তবে কে খাবে ?” জীবী । ঐ মেয়েটি খাবে দেখছিস্ নে, ঐ মেয়েটিকে ফুধ খাওয়া । নিমি তখন আসনপিড়ি হইয়া বসিয়া মেয়েকে কোলে শোয়াইয়। ঝিনুক লইয়৷ তাহাকে ফুধ খাওয়াইতে বসিল । সহসা তাহার চক্ষু হইতে ফোটাকতক জল পড়িল । তাহার একটি ছেলে হইয়৷ মরিয়া গিয়াছিল, তাহারই ঐ ঝিনুক ছিল। নিমি তখনই হাত দিয়া জল মুছিয়া হাসিতে হাসিতে জীবানন্দকে জিজ্ঞাসা করিল,— “হঁ্য দাদা, কার মেয়ে দাদা ?” জীবানন্দ বলিলেন, “তোর কি রে পোড়ারমুখী ?”