পাতা:আরোগ্য - মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১০৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হবার খবর জানাতে আসবে। আসল খবর এই যে কমল উঠেছে ভাড়াটে ফ্লাটে, মলিনা এসে বাস করেছে। এ বাড়ীতে । তাকে দেখলেই কমল নাকি মরিয়া হয়ে ওঠে ! কেশব তাকে একটা সিগারেট দিয়ে বলে, দেশের জন্য তোর আর মন কঁদে না, নারে নিমাই ?

র্কাদে না ? বাঃ ! ঃ বেশ তো ফুতিতে থাকিস দেখি । : কি করি বল ? মন খারাপ করে লাভ কি ? এবারও ধান ভাল হয় নি, তাতে আবার ধান কেটে নিয়ে গেছে। দেশে যাওয়া

ठूC< ब्ा ९ी2न्म ! ঃ তাই ফুতিতে আছিস । ঃ ফুর্তি আবার কি দেখলে ? মায়ের বলে চিঠি পাইনি একটা মাস। কিন্তু মন খারাপ করে রইলে আর লাভ কি হবে বল ? মোহিনীর হয়েছে ডবল নিমুনিয়া । হয়েছিল সামান্য জ্বর। ভূবন তার জ্বরের জন্য ওষুধ আনতে গেছে, সেই ফাকে শরতের বাগানের গাছডাকা ছায়াশীতল পুকুরে গায়ের জ্বালা কমাবার জন্য জর গায়ে অনেকক্ষণ ডোবাডুবি করে ভিজে কাপড়ে হেঁটে বাড়ী ফেরার জন্য কিনা কে জানে ! জ্বরের জন্যই পুকুরের জলে গা জুড়োতে যাওয়া । সেটা কি জ্বর ছিল ? মোহিনীর কিছু হলেই ভুবনেশ্বর কাবু হয়ে পড়ে। যথা-সর্বস্ব হারাবার ভয়ে মানুষ যেমন ভড়কে যায় । লেভেল ক্রসিং-এর ওপর থুেক্সে বেশী ভিজিটের ডাক্তার এনেছে। দিবারাত্রি ডাক্তারের নির্দেশুমাির্ত ওষুধপত্র খাওয়াচ্ছে, সেবা করছে। A କନ୍ଧ