পাতা:আর্য্য-নারী দ্বিতীয় ভাগ.djvu/৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

yo यार्थ-ब्रांौ । সম্মান আকবর যেরূপ রক্ষা করেন, তাহার সম্মান সেইরূপ রক্ষা করিবেন। এরূপ বোধ হয় না। তুমি এমন রূপবতী। এই রূপ লইয়া মোগলের রাজধানীতে আত্মসম্মান রক্ষা করিয়া থাকিতে পরিবে ?” জয়াবতী একটু হাসিয়া বস্ত্রমধ্য হইতে ভীষ্ম ' ছুরিকা বাহির করিয়া কহিলেন,-“আত্মসম্মান রক্ষার জন্য মোগলের ভরসা। • করিয়া আমি দিল্লী যাইতেছি না। প্রয়োজন হইলে আমার এই ছুরী আমার সম্মান রক্ষা করিবে। সম্মান রক্ষার জন্য মরিতে হয় মরিবি, কিন্তু তাই বলিয়া যতদিন জীবিত আছি, স্বামী সেবা হইতে কেন বঞ্চিত থাকিব ?” আর কেহ আপত্তি করিলেন না। জয়াবতী দিল্লীতে স্বামীর নিকট গমন করিলেন । পূর্বেই বলিয়াছি, আকবর পৃথিরাজকে বন্দীর ন্যায় হীন অবস্থায় রাখেন নাই। অন্যান্য রাজপুত পারিষদগণের ন্যায় সসম্মানে তাহাকে রাখিয়াছিলেন। জয়াবতীও সেই সব পারিষদপত্নীগণের ন্যায় দিল্লীতে স্বামীর সঙ্গে রহিলেন। মুশলমানদের মধ্যে নববর্ষের প্রথমে নেরোজা নামে এক মহোৎসব প্রচলিত ছিল। এই নৌরোজা উৎসবের অনুকরণে আকবর দিল্লীতে ‘খোসা রোজা” ( বা আমাদের দিন) নামে এক উৎসবের প্রতিষ্ঠা করেন। কেহ কেহ এই উৎসবকেও “নৌরোজা” বলিতেন। এই উৎসবের সময় দিল্লীতে মেয়েদের এক মেলা হইত। বাদাসাহের, তাহার ওমরাহগণের এবং