পাতা:ইন্দিরা-বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়.djvu/১১৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


छूशैक्ष नब्रिाम्हन 射 এইরূপে ছুই জাৱ একে তিন বৎসর গেলে, অৰুন্মাৎ এক দিন থমাস বলিলেন BBSHHBS BBBBB BB BDDS BBBBB BB BB BBBB BB DBBBDS গুরুদেৰ সেইখানে যাইতে অনুমত্তি করিয়াছেন । তথায় হিরন্ময়ীর বিবাহ হইবে। লেইখানে তিনি পাত্র স্থির করিয়াছেন।” - - ধমদাস, পত্নী ও কন্যাকে লইয়া কাশী যাত্রা করিলেন। উপযুক্তকালে কাশীতে উপনীত হইলে পর, ধনদাসের গুরু আনন্দস্বামী আসিয়া সাক্ষাৎ করিলেন। এবং বিবাহের দিম স্থির করিয়া যথাশাস্ত্র উদ্যোগ করিতে বলিয়া গেলেন । বিৰাহের যথাশাস্ত্র উদ্যোগ হইল, কিন্তু ঘটা কিছুই হইল মা। ধনদাসের পরিবায়ন্থ ব্যক্তি ভিন্ন কেহই জানিতে পারিল না যে, বিবাহ উপস্থিত । কেবল শাস্ত্রীয় আচার সকল রক্ষা করা হুইল মাত্র। বিবাহের দিন সন্ধ্য। উত্তীর্ণ হইল—এক প্রহর রাত্রে লগ্ন, তথাপি গৃহে যাহার সচরাচর থাকে, তাহারা ভিন্ন আর কেহ নাই। প্রতিবাসীরাও কেহ উপস্থিত নাই। এ পৰ্য্যস্ত ধনদাস ভিন্ন গৃহস্থ কেহও জানে না যে, কে পাত্র—কোথাকার পাত্র। তবে সকলেই জানিত যে, যেখানে আনন্দস্বামী বিবাহের সম্বন্ধ করিয়াছেন, সেখানে কখন অপাত্র স্থির। করেন নাই । তিনি যে কেন পাত্রের পরিচয় ব্যক্ত করিলেন না, তাহ তিনিই জানেনর্তাহার মনের কথা বুঝিবে কে ? একটি গৃহে পুরোহিত সম্প্রদানের উদ্যোগাদি করিয়া একাকী বসিয়া আছেন। বাহিরে ধনদাস একাকী বরের প্রতীক্ষা করিতেছেন। অন্তঃপুরে । কন্যাসজ্জা করিয়া হিরন্ময়ী বসিয়া আছেন—আর কোথাও কেহ নাই । হিরন্ময়ী মনে মনে ভাবিতেছেন—“এ কি রহস্য । কিন্তু পুরন্দরের সঙ্গে যদি বিবাহ না হইল—তবে যে হয় তাহার সঙ্গে বিবাহ হউক—সে আমার স্বামী হইবে না।” এমন সময়ে ধনদাস কস্তাকে ডাকিতে আসিলেন । কিন্তু র্তাহাকে সম্প্রদানের স্থানে লইয়া যাইবার পূৰ্ব্বে, বক্সের দ্বারা তাহার হুই চক্ষু দৃঢ়তর বাধিলেন। হিরন্ময়ী কহিলেন, “এ কি পিতা ”ি ধনদাস কহিলেন, “গুরুদেবের আজ্ঞা । তুমিও আমার আজ্ঞামত কাৰ্য্য কর। মন্ত্রগুলি মনে মনে বলিও ” শুনিয়া হিরন্ময়ী কোন কথা কহিলেন মা। ধনদাস দৃষ্টিহীন কন্যার হস্ত ধরিয়া সম্প্রদানের স্থানে লইয়া গেলেন। হিরন্ময়ী তথায় উপনীত হইয়। যদি কিছু দেখিতে পাইতেন, তাহা হইলে দেখিতেন যে, পাত্রও উহার স্কায় আবৃত্তনয়ন। এইরূপে বিবাহ হইল। সে স্থানে গুরু পুরোহিত এবং কস্তাকর্তা ভিন্ন আর কেহ ছিল না। ঘর কন্যা কেহ কাহাকে দেখিলেন না। শুভদৃষ্টি হইল না।